Templates by BIGtheme NET
Home / অন্যান্য / এ লজ্জা কার ?

এ লজ্জা কার ?

অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক

অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক

মেহেরপুর নিউজ,১৫ মে:
কুষ্টিয়াতে নিবন্ধন পরীক্ষা দিতে গিয়ে মেহেরপুরের মুজিবনগর আম্রকানন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ধর্ষন করেছেন একই বিদ্যালয়ের খন্ডকালীন খৃষ্টান ধর্মীয় শিক্ষিকাকে। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার সকালের দিকে কুষ্টিয়ার একটি হোটেলে। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের জন্য পরীক্ষার্থী ঐ স্কুল শিক্ষিকা পরীক্ষা হলে না গিয়ে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। এদিকে ধর্ষক প্রধান শিক্ষক শরিফুল ইসলাম কুষ্টিয়া থেকেই পালিয়েছেন। ধর্ষক শরিফুল ইসলাম ভবরপাড়া গ্রামের রহমান মোল্লা ওরফে ন্যাড়া মোল্লার ছেলে।  এদিকে এ ঘটনার পর থেকে ওই শিক্ষক শরিফুলকে ধিক্কার জানাচ্ছে স্থানীয়রা।
ধর্ষিতার পরিবারের সদস্যরা জানান, মেহেরপুর সরকারি মহিলা কলেজে  পড়ার সময় মুজিবনগর আম্রকানন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে খন্ডকালীন ধর্মীয় শিক্ষক (খৃষ্টান) হিসেবে নিয়োগ লাভ করেন ওই শিক্ষিকা। নিবন্ধন পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ ছাড়ায় ৩ বছর চাকরী করেন। চলতি বছরের শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় অংশ গ্রহনের জন্য বৃহস্পতিবার তার বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শরিফুল ইসলামের সাথে কুষ্টিয়া যান এবং সেখানে একটি হোটেলের আলাদা আলাদা রুমে রাত্রি যাপন করেন। সকালে পরীক্ষা অংশ নিতে যাওয়ার প্রস্তুতি গ্রহণকালে প্রধান শিক্ষক তার রুমে প্রবেশ করে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন। ওই সময় রক্তক্ষরণ হলে তিনি পরীক্ষা হলে না গিয়ে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। এদিকে লম্পট ওই ঘটনার পর হোটেল থেকে গাঢাকা দেন। বর্তমানে তিনি পলাতক রয়েছেন।
মুজিবনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাজী কামাল হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন-  ধর্ষিতার পরিবারকে প্রয়োজনীয় পরামর্শ দিয়েছেন। তিনি আরো বলেন- মামলা করলে কুষ্টিয়া থানায় করতে হবে। সেক্ষেত্রে ধর্ষিতার পরিবারকে তিনি সব ধরণের সহযোগিতা করবেন।

Facebook Comments
Social Media Sharing
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.