Templates by BIGtheme NET
Home / বর্তমান পরিপ্রেক্ষিত / গাংনীতে চোর সন্দেহে মানসিক প্রতিবন্ধীর হাতের আঙ্গুল ও পায়ের রগ কর্তন

গাংনীতে চোর সন্দেহে মানসিক প্রতিবন্ধীর হাতের আঙ্গুল ও পায়ের রগ কর্তন

মেহেরপুর নিউজ,০৯ ফেব্রুয়ারি:

মেহেরপুরের গাংনীতে লুৎফর রহমান (৫৫) নামের এক মানষিক প্রতিবন্ধীকে নির্যাতনের পর হাতের আঙ্গুল ও পায়ের রগ কেটে দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে।
শনিবার ভোরে হাসপাতালের পিছনে আব্দুল বারী মাষ্টারের ছেলে বিদুতের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ আহতবস্থায় লুৎফর রহমানকে গাংনী হাসপাতালে ভর্তি করে। লুৎফর রহমান মেহেরপুর ফৌজদারি পাড়ার বদর উদ্দীনের ছেলে।

গাংনী থানার সহকারী উপ পুলিশ পরিদর্শক (এএসআই) ইসরাফিল হোসেন জানান,হাসপাতালের পিছনে আব্দুল বারী মাষ্টারের ছেলে বিদুতের বাড়িতে চোর প্রবেশ করেছে এসমন সংবাদে তার বাড়ির ভাড়াটিয়া সহ স্থানীয় লোকজন লুৎফর রহমানকে আটক করে। তবে লুৎফর রহমানকে কে বা কারা নির্যাতন ও তার পায়ের রগ ও হাতের আঙ্গুল কেটে দিয়েছে তা তিনি জানেন না। খবর পেয়ে লুৎফর রহমানকে উদ্ধার করে গাংনী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

লুৎফর রহমানের পরিবারের বরাত দিয়ে গাংনী থানার ওসি তদন্ত মো: সাজেদুল ইসলাম জানান, লুৎফর রহমান মানষিক প্রতিবন্ধী বলে জানায় তার পরিবার। পরিবারের আবেদনের প্রেক্ষিতে লুৎফর রহমানকে তার স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এদিকে লুৎফর রহমানের  স্বজনদের দাবি সে মানষিক প্রতিবন্ধী ও বৃদ্ধ মানুষ। তাকে ব্যাপক নির্যাতন করে হাতের আঙ্গুল ও পায়ের রগ কেটে দেয়া হয়েছে।

বিদ্যুতের বাড়ির ভাড়াটিয়া খোকন ও আকবর আলী জানান,লুৎফর রহমানের ৩ সহযোগী পালিয়ে গেছে। দুর থেকে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করেছে তারা। লুৎফর রহমানকে আটক করার পর জনগন তাকে গনগণ ধোলাই দিয়েছে। প্রাচীর পার হতে গিয়ে তার পা কেটে গিয়েছে।

Facebook Comments
Social Media Sharing
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.