Templates by BIGtheme NET
Home / বর্তমান পরিপ্রেক্ষিত / গাংনীতে পুলিশের সঙ্গে বন্দুক যুদ্ধে ডাকাত নিহত, অস্ত্র ও বোমা উদ্ধার

গাংনীতে পুলিশের সঙ্গে বন্দুক যুদ্ধে ডাকাত নিহত, অস্ত্র ও বোমা উদ্ধার

মেহেরপুর নিউজ, ১১ এপ্রিল:
মেহেরপুরের গাংনীতে পুলিশের সঙ্গে বন্দুক যুদ্ধে অজ্ঞাত এক ডাকাত (৪৮) নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন দুই পুলিশ সদস্য।
মঙ্গলবার দিবাগত রাত ২ টার দিকে উপজেলার হেমায়েতপুর-আমতৈল সড়কে আমানুল্লাহর কলাবাগানে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। নিহত ডাকাতের পরিচয় এখনো সনাক্ত করা সম্ভব হয়নি।
এঘটনায় পুলিশের দুই কনষ্টেবল আহত হয়েছেন। আহতরা হলেন- কনষ্টেবল খাইরুল ইসলাম (পুলিশ নং ৩৭৭) এবং কনষ্টেবল আব্দুর রাজ্জাক ( পুলিশ নং ১৩০)। আহত পুলিশ সদস্যরা গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে থানায় ফিরেছেন। ঘটনাস্থল থেকে একটি দেশীয় তৈরী এলজি পিস্তুল, ৪ টি হাতবোমা ও দুইটি দেশীয় তৈরী ধারালো হাসুয়া উদ্ধার করেছে।
গাংনী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হরেন্দ্রনাথ সরকার জানান, ঘটনাস্থলে একদল ডাকাত ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তি¡তে সেখানে পুলিশের একটি টীম সেখানে অভিযান চালায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাতদল পুলিশকে লক্ষ্য কওে গুলি বর্ষণ শুরু করে। পুলিশও পাল্টা ১০ রাউন্ড সর্টগানের ও ৪ রাউন্ড চাইনা বন্দুকের গুলি ছুঁড়ে। পুলিশ ও ডাকাতদের গোলাগুলির এক পর্যায়ে ডাকাতরা পালিয়ে যায়। এসময় অজ্ঞাত ডাকাত (৪৮)কে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ঘটনাস্থলে পাওয়া যায়। পরে তাকে উদ্ধার করে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
ওসি আরো জানান, বন্দুক যুদ্ধের সময় গাংনী থানার ওসি তদন্ত সাজেতুল ইসলাম, এসআই মাহাতাব আলী, এসআই আমিনুল ইসলাম,এসআই স্বপন কুমার,এএসআই মামুন অর রশিদ সহ পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
ওসি জানান, নিহত ডাকাতের লাশ গাংনী থানা চত্বরে রাখা হয়েছে। পরিচয় সনাক্তের পর ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করাহবে।
গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার এমকে রেজা জানান, নিহতের পেটে ও ডানের উরুর পাশে গুলিবিদ্ধ থাকায় অতিরিক্ত রক্তক্ষরনে তার মৃত্যু হয়েছে।

 

Facebook Comments
Social Media Sharing
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.