Templates by BIGtheme NET
Home / খেলাধুলা / গাংনীতে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্ণামেন্টে অনিয়মের অভিযোগ :: ১৬ দলের মধ্যে ১৪ দল বাদ

গাংনীতে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্ণামেন্টে অনিয়মের অভিযোগ :: ১৬ দলের মধ্যে ১৪ দল বাদ

মেহেরপুর নিউজ,১৫ মে:
মেহেরপুরের গাংনীর তেঁতুলবাড়িয়া ইউনিয়নে বঙ্গবন্ধু বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্ণামেন্টে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। এ ইউনিয়নের ১৬ টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ক্ষুদে ফুটবলাররা এ টুর্ণামেন্টে অংশ নেওয়ার কথা থাকলেও মাত্র দুটি সরকার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ফুটবলাররা খেলার সুযোগ পান। খেলায় অংশ নিতে না পরায় ক্ষোভ বিরাজ করছে অন্য সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের খেলোয়ার,শিক্ষক ও অভিভাবক বৃন্দের মধ্যে।
রামদেবপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মনিরুল ইসলাম জানান, তেঁতুলবাড়িয়া ইউপির ১৬ টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক বৃন্দ মিলে মাত্র দুটি পুরুষ দল কে খেলানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সে কারনে কল্যানপুর মধ্যে পাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও রামদেবপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় একাদশের মধ্যে খেলা অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া ভরাট সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মহিলা একাদশ কে একক ভাবে বিজয়ী ঘোষনা করা হয়। সরকারীনির্দেশ অমান্য করে ১৪ সরকারী প্রাথমিক দল কে বাদ দিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে পারেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাব দিতে গড়িমসি করেন রামদেবপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মনিরুল ইসলাম।
হিন্দা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গোলাম মোস্তফা বলেন,বঙ্গবন্ধু বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্নামেন্টে অনিয়ম হয়েছে এ কারনে তার দল খেলায় অংশ নেয়নী।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক করমদী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একজন শিক্ষক বলেন,আমাদের ছেলেদের খেলতে দেয়নী তাই খেলায় অংশ নেয়া হয়নী।
করমদী পশ্চিমপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাইফুল ইসলাম জানান, বঙ্গবন্ধু বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্ণামেন্টে সভাপতি নিয়ে কোন্দল দেখা দেওয়ার কারনে খেলা পিছিয়ে যায়। আপনার স্কুল কেন খেলায় অংশ নেয়নী জানতে চাইলে তিনি কোন মন্তব্য করতে রাজি হননী।
করমদী সাহাবুর পাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাবুল আহমেদ জানান, ১১ মে মাসিক মিটিং এ খেলা শুরু করার তাগিদ দেন উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার এহসান হাবিব। সেজন্য রামদেবপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মনিরুল ইসলাম ও তার ভাই পলাশীপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক খাইরুল ইসলাম তপন কে দায়িত্ব দেন শিক্ষা অফিসার। তবে সময় দিয়ে হলেও সকল স্কুল কে খেলার সুযোগ দেয়া উচিত ছিল। কিন্তু তা করা হয়নী।
পলাশীপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক খাইরুল ইসলাম তপন জানান,টুর্ণামেন্ট কমিটির সভাপতি নিয়ে সমস্যা হওয়ার কারনে খেলা বিলম্ব হয়েছে। তিনি আরো জানান, ইউপি চেয়ারম্যান বিএনপির সে কারনে আওয়ামীলীগের সাবেক চেয়ারম্যান নাজমুল হুদা বিশ্বাস কে এ টুর্ণামেন্টের সভাপতি করা হয়েছে। সভাপতি পরিবর্তনের কোন সরকারী আদেশ আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি এবিষয়ে এড়িয়ে যান।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ক্ষুদে ফুটবলার জানান,অনেক দিনের সপ্ন ছিল বঙ্গবন্ধু বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্ণামেন্টে অংশ নেব কিন্তু কি কারনে যে হলোনা তা জানিনা। তবে ঐ ক্ষুদে ফুটবলার পুনরায় সকল দল কে নিয়ে খেলা চালু করার দাবি করেন।
গাংনী উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) এহসান হাবিব জানান,স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান কে সভাপতি ও ১৬ টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কে সদস্য করে বঙ্গবন্ধু বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্ণামেন্ট চালু করার কথা বলা হয়েছে। কোন অনিয়ম করা হয়েছে কি না জানিনা।
জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার জেসের আলী বলেন আমি এ বিষয়ে কিছুই জানিনা। এ ব্যপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা শিক্ষা অফিসারের সাথে যোগাযোগ করতে বলেন।
জেলা প্রশাসক পরিমল সিংহ বলেন বিষয়টি আমি জানিনা তবে খোঁজ খবর নেয়া হবে।

Facebook Comments
Social Media Sharing
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.