Templates by BIGtheme NET
Home / অন্যান্য / গাংনীতে যৌতুকের কারনে নির্যাতনের শিকার এক গৃহবধূ

গাংনীতে যৌতুকের কারনে নির্যাতনের শিকার এক গৃহবধূ

মেহেরপুর নিউজ ২৪ ডট কম, ১৭ মার্চ:
মাত্র ১৩ হাজার টাকা যৌতুকের দাবীতে গাংনীর ধর্মচাকী গ্রামে এক গৃহবধূকে নির্যাতন করেছে যৌতুক লোভী পাষন্ড স্বামী, শাশুড়ি ও ননদ।
অমানুষিক নির্যাতনের স্বীকার সদ্য প্রসূতি গীতা রানি দাসী এখন হাসপাতালের বেডে ছটফট করছে। সোমবার সকালে এ ঘটনাটি ঘটেছে গাংনী উপজেলার ধর্মচাকী গ্রামের দাস পাড়া এলাকায়। আহত গীতা রানি এখন গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপে­ক্সের চিকিৎসাধীন রয়েছে।
জানা গেছে, ৫/৬ বছর পূর্বে মেহেরপুর সদর উপজেলার গোভিপুর গ্রামের শ্রী রাম দাসের মেয়ে গীতা রানী দাস (২৪) এর সাথে গাংনী উপজেলার ধর্মচাকী গ্রামের  মৃত কেস্ট গোপাল দাসের ছেলের সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের সময় ৩০ হাজার টাকা যৌতুকের দাবী থাকলেও বিয়ের সময় ১৭ হাজার টাকা পরিষোধ করে মেয়ে পিতা শ্রী রাম দাস। অভাবের তাড়নায়  যৌতুকের বাকি টাকা দিতে না পারায় তার উপর মাঝে মাধ্যে নির্যাতন করে আসছিল যৌতুকলোভী স্বামী।
আহত গীতা রানি জানান, মাত্র ১৫ দিন আগে একটি সন্তান হয়েছে। আজ সোমবার সকালে যৌতুকের ১৩ হাজার টাকা এনে দেওয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করে স্বামী ও শাশুড়ি। তাদের দাবী করা যৌতুকের টাকা এনে দিতে অস্বীকার করাই স্বামী বুদু দাস শাশুড়ী গঙ্গা বালা দাসী ননদ ভাদী বালা দাসী ও নুনদাই ললন দাস মিলে ঘরের ভিতর আটকিয়ে বুকের উপর লাথি মারতে থাকে। এক পর্যায়ে মারা গেছে ভেবে বাড়ির পার্শ্বে  রাস্তার পাশে ফেলে আসে।
পরে গীতা রানির  চিৎকার শুনে প্রতিবেশিরা মূমূর্ষ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে গাংনী হাসপাতালে ভর্তি করে।
গাংনী থানার ওসি মাছুদুল আলম জানান, এ নিয়ে থানায় কেউ কোন প্রকার অভিযোগ দেইনি। অভিযোগ দিলে প্রয়োজনীয় অইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Facebook Comments
Social Media Sharing
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.