Templates by BIGtheme NET
Home / বিশেষ প্রতিবেদন / গাংনীর কাজিপুরে পুলিশ হত্যাকান্ডের ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন

গাংনীর কাজিপুরে পুলিশ হত্যাকান্ডের ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন

আপডেট- পুলিশ হত্যা:
Untitled-1ফারুক আহমেদ, গাংনী থেকে:
মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার কাজিপুরে পুলিশ কনষ্টেবল আলাউদ্দীন হত্যা কান্ডের ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। হত্যাকান্ডে পুলিশের কোন গাফলতি ছিল কিনা তা তদন্তের জন্য রবিবার ৩ সদস্য বিশিষ্ট এ কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির প্রধান সহকারী পুলিশ সুপার সার্কেল মুস্তাফিজুর রহমান। সদস্যরা হলেন গাংনী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আকরাম হোসেন ও ডিআইও ওয়ান ওসি সলেমান মিয়া। এ কমিটিতে ৫ দিনের মধ্যে রির্পোট দিতে বলা হয়েছে। এ নির্দেশনা পেয়ে ইতো মধ্যে তদন্তে নেমেছে এ কমিটি। পুলিশ কনষ্টেবল হত্যার ঘটনায় কাজিপুর এলাকায় চলছে শুনশান নিরবতা। শোকের মাতম বইছে পরিবার সহ পুলিশ সদস্যদের মধ্যে। এদিকে এএসআই সুবির রায়ের পাশাপশি পীরতলা পুলিশ ক্যাম্পে এসআই কামাল হোসেন কে দ্বায়িত্ব দেয়া হয়েছে।
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আহমার উজজ্জামান জানান,ইতো মধ্যে গাংনী থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলার তদন্ত চলছে। হত্যাকান্ডের ঘটনায় গুরুত্বপূর্ন তথ্য পাওয়া গেছে। দ্রত সময়ের মধ্যে অপরাধীদের গ্রেফতার করা সম্ভব হবে।
তদন্ত কমিটির প্রধান ও সহকারী পুলিশ সুপার সার্কেল এএসপি মুস্তাফিজুর রহমান জানান,কিভাবে হত্যাকান্ড ঘটেছে এবং হত্যাকান্ডে কারো গাফলতি ছিল কিনা তা তদন্ত করা হচ্ছে। এছাড়া হত্যাকান্ড সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ন তথ্য পাওয়া গেছে। ইতো মধ্যে মাইক্রোবাস চালক আনিচের বাবা কুষ্টিয়া জেলার মিরপুর উপজেলার বলিদাপাড়ার কালু মিয়া কে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন,আনিচ ঢাকা সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে মাইক্রোবাস যোগে রুগী নেওয়ার নামে ফেন্সিডিল পাচার করে আসছিল বলে জানা গেছে। আনিচের পিতা কালু মিয়ার বরাত দিয়ে সহকারী পুলিশ সুপার আরো জানান,আনিচ বেপোরোয়া জীবন যাপন করতো। এসব বিষয়ে নিষেধ করলে পরিবারের সদস্যদের উপর নির্যাতন করতো। একারনে ছেলের সাথে তার কোন সম্পর্ক নেই বলে দাবি করেছে। এছাড়া পুলিশ কনষ্টেবল আলাউদ্দীন হত্যা কান্ডের ঘটনায় ছেলে আনিচের দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবি জানান কালু মিয়া। নিহত পুলিশ কনষ্টেবল আলাউদ্দীনের স্ত্রী পানশী খাতুন তার স্বামীর হত্যাকারীদের দ্রত গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবি জানান।
স্থানীয়রা জানান,কাজিপুর ও তেঁতুলবাড়িয়া সিমান্ত এলাকা হওয়ার কারনে অপরাধ প্রবনতাটা অনেকটাই বেশি। এ সিমান্ত দিয়ে ফেন্সিডিল,মদ,গাঁজা সহ অস্ত্র পাচার হয়ে আসছে। গত কয়েক বছরে র‌্যাব ও পুলিশ বড় অস্ত্রের চালান আটক করে। এছাড়া বিপুল পরিমান ফেন্সিডিলও উদ্ধার করে আইনশৃংখলা বাহিনী। কিন্তু বামুন্দী,কাজিপুর পুলিশ ক্যাম্পে পর্যাপ্ত জনবল না থাকায় মাদক ও অস্ত্র ব্যবসায়ীরা ঐ এলাকায় এখনও সক্রিয় রয়েছে।
গাংনী থানার ওসি আকরাম হোসেন জানান,ইতো মধ্যে সিমান্ত এলাকায় র‌্যাব ও বিজিবির পাশাপশি পুলিশ কে সর্তক অবস্থায় রাখা হয়েছে। মাদক ও অস্ত্র ব্যবসায়ীদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
মেহেরপুরের পুলিশ সুপার হামিদুল ইসলাম এ জেলায় যোগদানের পর মাদকের বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষনা করে। একারনে গত ৬ মাসে অন্তত ২ শতাধিক মাদক ব্যবসায়ীকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত।

সম্প্রতি মেহেরপুরের এএসপি সার্কেল মুস্তাফিজুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল গাংনী উপজেলার কাজিপুর বর্ডার পাড়া থেকে ২৮০ বোতল ফেন্সিডিল সহ দবির উদ্দীন (৪৫) নামের এক মাদক ব্যবসায়ী কে গ্রেফতার করে।
১৪ জুলাই ২০১৫ তারিখে মেহেরপুরের এএসপি সার্কেল মুস্তাফিজুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল গাংনী উপজেলার কাজিপুর সিমান্ত থেকে অস্ত্র ও বোমা সহ আব্দুর রশিদ নামের এক সন্ত্রাসী কে গ্রেফতার করে।
২০১৫ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি গাংনী ক্যাম্প কমান্ডার এএসপি উৎপল রায়ের নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি টিম কাজিপুর গ্রামের সাহেবপাড়া তালতলা এলাকা থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় ১৪৭ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করে। এছাড়া সহড়াতলা বিজিবি ক্যাম্প সদস্যরা সিমান্তের ১৩৫ নং পিলার থেকে পরিত্যাক্ত অবস্থায় ১৫শ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করেছে বিজিবি। ২০১১ সালের ১ লা জুলাই গাংনী উপজেলার বামুন্দী বাজার থেকে ৪ টি এলজি শার্টারগান উদ্ধার করে র‌্যাব। ২০১০ সালে গত ১ সেপ্টেম্বর র‌্যাব-৬ গাংনী ক্যাম্পের সদস্যরা অভিযান চালিয়ে গাংনী উপজেলার হাড়াভাঙ্গা গ্রামের বাঁশবাগান থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় ৫টি এলজি শার্টারগান, ৫টি বন্দুকের কার্তুজ ও ৬টি তাজা শক্তিশালী বোমা উদ্ধার করে। ১৯ সেপ্টেম্বর তেঁতুলবাড়িয়া গ্রাম থেকে আরও একটি আগ্নেয়াস্ত্র ও একটি বোমা উদ্ধার করে র‌্যাব। ইতোপূর্বে মাদক সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে নিজেদের মধ্যে হত্যাকান্ডের ঘটনাও ঘটিয়েছিল মাদক ব্যবসায়ীরা।

Facebook Comments
Social Media Sharing
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful