Templates by BIGtheme NET
Home / বর্তমান পরিপ্রেক্ষিত / গাংনী হাসপাতালের সামনে মার্কেট নির্মান নিয়ে তিন দপ্তরের রশি টানাটানি

গাংনী হাসপাতালের সামনে মার্কেট নির্মান নিয়ে তিন দপ্তরের রশি টানাটানি

মেহেরপুর নিউজ, ২৭ মে:
মেহেরপুরের গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে মার্কেট নির্মান কে কেন্দ্র করে রশি টানাটানি শুরু হয়েছে। জেলা পরিষদ, সড়ক জনপথ বিভাগ ও গাংনী পৌরসভার মধ্যে এ রশি টানাটানি চলছে। তিন দপ্তরের অনড় অবস্থানে বিপাকে পড়েছে হাসপাতাল বাজারের অস্থায়ী দোকানীরা।

মেহেরপুর জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো: খায়রুল হাসান স্বাক্ষরিত জেপ/মেহের/২০১৮/৬০ নং স্মারকে গত ১৬-০৫-১৮ ইং তারিখে জমি ইজারা/ ভাড়া প্রদানের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয় গাংনীর চৌগাছা মৌজার সি,এস-২৯২২,৪১১৬,আর,এস-৬৬৪৪,৭৮৭১ দাগের হাসপাতালর সামনের অংশে ১২০ বর্গফুট করে ৫৭ টি দোকান অস্থায়ী ভিত্তিতে ভাড়া দেয়া হবে। আগামী ৩০/৫/১৮ ইং তারিখের মধ্যে আবেদন জমা দেওয়ার আহবান জানানো হয়। এ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পর ২২/৫/১৮ ইং তারিখে গাংনী পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র নবীর উদ্দীন স্বাক্ষরিত মে:/গা:/পৌ:/১৮/১৯৩ নং স্মারকে মার্কেট নির্মান কিংবা পৌর এলাকায় কোন জমি ইজারা না দেওয়ার জন্য জেলা পরিষদকে পত্র প্রেরণ করে। পত্রে বলা হয়, পৌর এলাকার মধ্যে শহর সৌন্দর্য বর্ধন, ড্রেন নির্মান,ফুটপথ নির্মানের দায়িত্ব পৌরসভার উপর বর্তায়।

হাসপাতালের সামনের দোকনদারদের সাথে কথা বললে কয়েকজন জানান, একেবারে মেহেরপুর-কুষ্টিয়া সড়কের পাশে হাসপাতালের প্রাচীর এর মধ্যে সীমিত জায়গা তাই এখানে বড় মার্কেট করলে পথচারীরা দূর্ভোগে পড়বে। হাসপাতালের সামনের জায়গা সড়ক জনপথের বলে শুনে এসেছি। এখন শুনছি জেলা পরিষদের। এ জমি যদি সড়ক জনপথের না হয় তাহলে ইতোপূর্বে তারা কিভাবে অস্থায়ী দোকান গুলো ভেঙ্গে দিয়েছিলো। তবে জমি জেলা পরিষদের হয় তাহলে অবৈধ ভাবে দোকান ভাঙ্গার কারনে সড়ক জনপথের বিরুদ্ধে ক্ষতি সাধনের মামলা দায়ের করার হুশিয়ারি দেন তাঁরা।

গাংনী পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র নবীর উদ্দীন বলেন, জলবায়ু ট্রাষ্ট ফান্ডের সহায়তায় ড্রেন ও ফুটপাথ নির্মাানের কাজ চলমান রয়েছে। এছাড়া নগর উন্নয়ন অবকাঠামো প্রকল্প সহ ওয়াটার ট্রিটমেন্ট, স্যানিটেশনের কাজ দ্রত শুরু হতে যাচ্ছে। তাই জেলা পরিষদকে ইজারা বা মার্কেট নির্মান না করতে পত্র মারফত আহবান করেছি। আহবান উপেক্ষা করে ইজারা ও মার্কেট নির্মান করলে জেলা পরিষদের বিরুদ্ধে মামলা করা হবে।

মেহেরপুর সড়ক জনপথের নির্বাহী প্রকৌশলী মো: জিয়াউল হায়দার জানান, গাংনী হাসপাতালের সামনের জায়গার মালিক সড়ক ও জনপথ বিভাগ। তাই জেলা পরিষদ চাইলে সেখানে মার্কেট নির্মান বা ইজারা দিতে পারবেনা। ইজারা বিজ্ঞপ্তির বিষয়ে কোন ব্যবস্থা নিয়েছেন কি না জানতে চাইলে তিনি জানান, অফিশিয়াল ভাবে এখন কোন চিঠি আসেনী। চিঠি পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো: খায়রুল হাসান বলেন, আমরা মাপ করে দেখেছি হাসপাতালের সামনের অংশ জেলা পরিষদের। জমি তাদের সপক্ষে সড়ক জনপথ এমন কোন কাগজ দেখালে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মেহেরপুরের সিভিল সার্জন গাজী খান মো: সামসুজ্জামান বলেন, হাসপাতাল একটি গুরুত্বপূর্ন জায়গা। তাই জেলা পরিষদ চাইলে মার্কেট নির্মান কিংবা ইজারা দিতে পারবেনা। যদি ইজারা দিতে চাই তাহলে আমরা আপত্তি জানাব।

জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান গোলাম রসূল বলেন, ওই জমি জেলা পরিষদের। তার পরিষদের সিদ্ধান্ত মোতাবেক ইজারার মাধ্যমে মার্কেটও নির্মান করা হবে।

Facebook Comments
Social Media Sharing
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.