Templates by BIGtheme NET
Home / বর্তমান পরিপ্রেক্ষিত / ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের ওপর হামলার ঘটনায় নিন্দা

ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের ওপর হামলার ঘটনায় নিন্দা

মেহেরপুর নিউজ, ০৩ মার্চ:
শিক্ষাবিদ, লেখক এবং শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের ওপর হামলার ঘটনার নিন্দা ও হামলাকারীর বিচারের দাবিতে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার সন্ধ্যায় মেহেরপুরের অরণী থিয়েটারের কার্যালয়ে এ প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। তিব্র নিন্দা জানান প্রথম নারী এভারেষ্ট বিজয়ী নিশাত মজুমদার, মেহেরপুর জেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি তোজাম্মেল আযম, সাধারণ সম্পাদক ইয়াদুল মোমিন, সহসভাপতি মাহবুব চান্দু, অরণী থিয়েটারের সভাপতি নিশান সাবের, সাধারণ সম্পাদক আতিক স্বপন, সাংস্কৃতিক কর্মী মাহবুবুল হক মন্টু, শ্বাশত নিপ্পন, মান্না প্রমুখ।
জানা গেছে, আজ শনিবার বিকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে ফেস্টিভ্যাল চলছিল ক্যাম্পাসের মুক্তমঞ্চে। এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন অধ্যাপক জাফর ইকবাল, সেখানেই তার উপর হামলা হয়।
ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘বিকাল ৫টায় মঞ্চে ওঠার সময় পেছন থেকে ছুরি দিয়ে মাথায় আঘাত করা হয়।’
বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর জহির উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘মঞ্চের পেছন থেকে এসে এক ছেলে ছুরি মারে গলা, বুক ও মুখের দিকে। সঙ্গে সঙ্গে পুলিশসহ অন্যরা তাকে আটক করে।’ কী কারণে ওই তরুণ জাফর ইকবালের উপর হামলা করেছেন, সে বিষয়ে কিছু তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।
সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ে র‌্যাগিং নিয়ে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছিলেন জাফর ইকবাল। র‌্যাগিংয়ের দায়ে পাঁচ ছাত্রের শাস্তি দেওয়া হলে তিনি বলেছিলেন, এদের শাস্তির পরিমাণ কম হয়েছে, তাদের পুলিশে দেওয়া উচিৎ।
আবার এর পেছনে জঙ্গিদের হাত থাকতে পারে বলেও সন্দেহ রয়েছে কোনো কোনো শিক্ষার্থীর। জাফর ইকবাল বরাবরই জঙ্গিবাদ ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে উচ্চকণ্ঠ। এদিকে মাথায় জখম অবস্থায় জাফর ইকবালকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। তার অস্ত্রোপচার চলছে।
হামলার পর রক্তক্ষরণ হলেও তিনি কথা বলছিলেন বলে প্রত্যক্ষদর্শী শিক্ষার্থীরা জানিয়েছেন। হামলার পর শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ শুরু করেছে।এদিকে ড. জাফর ইকবালের ওপর হামলার প্রতিবাদে সন্ধ্যায় রাজধানীর শাহবাগে বিক্ষোভ মিছিলের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে গণজাগরণ মঞ্চ।
প্রসঙ্গত, দীর্ঘদিন ধরেই ড. জাফর ইকবাল এবং তার স্ত্রী প্রফেসর ড. ইয়াসমিন হককে একাধিকবার হত্যার হুমকি দেওয়া হয়। ২০১৬ সালের অক্টোবরে জঙ্গি সংগঠন আনসার উল্লাহ বাংলা টিমের পরিচয়ে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে হত্যার হুমকির পর জালালাবাদ থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন এই দম্পতি। আগের বছর ২০১৫ সালে শাবিপ্রবিতে উপাচার্য বিরোধী আন্দোলনে সস্ত্রীক সক্রিয় ছিলেন তিনি।সেসময় তার স্ত্রীসহ অন্য শিক্ষকরা ছাত্রলীগের হামলার শিকার হন।

Facebook Comments
Social Media Sharing
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful