Templates by BIGtheme NET
Home / অতিথী কলাম / প্রাথমিক শিক্ষা

প্রাথমিক শিক্ষা

নারগীস পারভীন:
বর্তমান যুগ সভ্যতার যুগ। সকল প্রকার উন্নয়ন উন্নতির জন্য সভ্যতার সংম্পর্শে থাকতে হবে। সভ্যতার সংস্পর্শে থাকতে হলে অবশ্যই শিক্ষার দরকার সর্বাগ্রে। শিক্ষার গুরুত্ব অনুধাবন করে সরকার ১৯৯২ সালের ১ জানুয়ারী থেকে প্রাথমিক শিক্ষা বাধ্যতামূলক ঘোষনা করেছে। প্রত্যেকটা মানুষের শিক্ষা লাভ তার মৌলিক অধিকার।

শিক্ষার আলোয় একজন মানুষ মনুষ্যত্ববোধে সমৃদ্ধ হয়ে নিজের ও জাতি গঠনে ভ’মিকা রাখতে পারে। শিশুরা হচ্ছে জাতির ভবিষ্যৎ। এছাড়াও শৈশবকাল হলো মানব জীবনের গাণিতিক ভিত্তি। প্রাথমিক শিক্ষার মাধ্যমে শৈশবকাল থেকে মানুষ শিক্ষার আলো লাভের মাধ্যমে ভালো মন্দ বিচার, দেশপ্রেমে উদ্ধুদ্ধ হওয়া, প্রাত্যাহিক জীবনের যাবতীয় হিসাব নিকাশ ও অন্যান্য কাজ কর্মে সাফল্য প্রভৃতি ও সামাজিক বিকাশ এবং ব্যাক্তিত্বের উন্নয়ন ও প্রাথমিক শিক্ষার উদ্যেশ্যে। এ শিক্ষা বেকারত্বে অভিশাপ থেকে মুক্তি লাভের উপায়।

প্রাথমিক শিক্ষা ৮ম শ্রেণী পযর্ন্ত উত্তীর্ণ করার যে যুগান্তর পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়েছে। যে পদক্ষেপে প্রাথমিক শিক্ষা হবে আরো যুগোপযোগী ও কার্যকরী। শিশু পাঁচ বছর বয়সে শিশুশ্রেনী (প্রাক-প্রাথমিক) দিয়ে যে শিক্ষা কর্যক্রম শুরু করেছে। একই পরিচিত পরিবেশন তখন সে ৮ম শ্রেণী পর্যন্ত পড়াশুনা করছে। আনন্দদায়কও শিশুবন্ধন পরিবেশে ৮ম শ্রেণী পর্যন্ত শিশু তার শিক্ষা কর্যক্রম চালাচ্ছে। বর্তমানে প্রতিটি প্রাথমিক বিদ্যালয় খুবই শিশুবান্ধব।

শিক্ষা বিষয়ে সরকার, শিক্ষা কর্মকর্তা, শিক্ষকের সাথে সাথে অভিভাবকদের এগিয়ে আসতে হবে সমান তালে। তবেই আমরা সফল হব, সার্থক হব।
প্রাথমিক শিক্ষা শুধু প্রতিটি শিশুর মানবিক গুনাবলী অর্জনের জন্যই প্রয়োজন নয়, প্রাথমিক শিক্ষা একটি দেশের সামাজিক ও অর্থনৈতিক অগ্রগতির জন্যই আবশ্যকীয় পূর্বশর্ত। প্রাথমিক শিক্ষা, পুষ্টি, আশ্রয়, স্বাস্থ্য এসব মেটাবার ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়। প্রাথমিক শিক্ষার তাই সামাজিক অংশ্রহনের মাধ্যমে সফলতার পর্যায়ে পৌছে দেওয়া। শিক্ষার গুনগতমান উন্নত করার জন্য আমাদের সকলকে ভ’মিকা পালন করতে হবে।
লেখক: নারগীস পারভীন, প্রধান শিক্ষক, রায়পুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, সদর, মেহেরপুর।

Facebook Comments
Social Media Sharing
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.