Templates by BIGtheme NET
Home / বিশেষ প্রতিবেদন / বাংলাদেশ প্রতিদিন পত্রিকার সম্পাদক,প্রকাশক,ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি সহ ৫ জনের নামে মেহেরপুর আদালতে ক্ষতিপূরন ও মানহানির মামলা

বাংলাদেশ প্রতিদিন পত্রিকার সম্পাদক,প্রকাশক,ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি সহ ৫ জনের নামে মেহেরপুর আদালতে ক্ষতিপূরন ও মানহানির মামলা

মেহেরপুর নিউজ ২৪ ডট কম.০৫ অক্টোবর:

বাংলাদেশ প্রতিদিন পত্রিকায়“এমপি জয়নালের ধম্য শ্যালকের দাপট” শিরোনামে সংবাদ প্রকাশের জের হিসেবে পত্রিকাটির সম্পাদক, প্রকাশক,ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি সহ ৫ জনের নামে ৩০ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরন ও মানহানির মামলা করেছে মেহেরপুর শহর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও বিশিষ্ট মোটর পাটর্স ব্যবসায়ী মো: আক্কাছ আলী। মামলার নং-২৮০/১০। মামলার আসামীরা হলেন, বাংলাদেশ প্রতিদিন পত্রিকার সম্পাদক শাহজাহান সর্দার,প্রকাশক মোসৱফা কামাল মহিউর্দ্দিন,পত্রিকাটির ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি,মেহেরপুর শহরের মল্লিকপাড়া নিবাসী দৈনিক জনতার মেহেরপুর প্রতিনিধি মো:কামারুজ্জামান খাঁন,সংবাদপত্র পরিবহন ব্যবসায়ী মেহেরপুর শহরের শহীদ গফুর সড়কের মৃত আব্দুস ছাত্তারের ছেলে মো: আক্তার হোসেন রিন্টু।

আজ মঙ্গলবার সকালে মেহেরপুর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে দণ্ডবিধির ২৯৫(ক)/৫০০/৫০০(ক)/৫০৬(এ) ধারায় মামলাটি দায়ের করা হয়। চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মাহফুজুর রহমান মামলাটি আমলে নিয়ে মেহেরপুর সদর থানার অফিসার ইনচার্জ কে তদনেৱর নির্দেশ দেন।

মামলার আরজিতে বলা হয়,আসামীদ্বীয় পরস্পর প্রিন্ট মিডিয়ার সাথে জড়িত। অপরদিকে বাদী মেহেরপুর শহরের প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী ও শহর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করে আসছে। ৪ নং আসামী কামারুজ্জামান খাঁন সাংবাদিক পরিচয়ে হলুদ সাংবাদিকতা ও বিভিন্ন লোকের জমি জালিয়াতি ও খবরের কাগজের প্রভাব খাটিয়ে অন্যায় ভোগ দখলকারী হওয়ায় তার বিরুদ্ধে মসজিদের জমি জাল করার বিষয়ে স্থানীয় লোকজনকে সহায়তা করায় আসামী মামলার বাদীর প্রতি ক্ষিপ্ত হয়। তার নামে ইতিমধ্যে দেওয়ানী ও ফৌজদারী  বিভিন্ন মামলা মোকাদ্দমা সে যেহেতু ভিন্ন রাজনৈতিক আদর্শে বিশ্বাসী এবং জামাত রাজনীতির সাথে প্রতিহিংসা পরায়ন হযে ৫ নং আসামী যিনি একজন পত্রিকা ব্যবসায় তার নিকট থেকে,প্রভাব খাটিয়ে রাজনৈতিক ও সামাজিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার লক্ষে বাংলাদেশ প্রতিদিন পত্রিকার ১৯৩ সংখ্যায় ৩০ †m‡Þ¤^i/10 তারিখে ১-৩ নং আসামীদেও প্রত্যক্ষ সহযোগীতায় “মেহেরপুরের এমপি জযনাল আবেদিনের দাপট”শীর্ষক মিথ্যাও ষড়যন্ত্রমূলক প্রতিবেদন ছাপায়। প্রতিবেদনের ৭ ম পৃষ্ঠায় উল্লেখ করা হয় এমপির ধর্ম শ্যালা বলে পরিচিত আক্কাছ আলী ফ্যাসালিটিজ এবং গনপূর্ত ,সড়ক ও জনপদ বিভাগের ঠিকাদারি নিয়ন্ত্রন করেন। পত্রিকায় প্রতিবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর মামলার আসামীগন বাদীর পক্ষে আরোও ক্ষিপ্ত হয়ে একই পএিকায় ৩ অক্টোবর তারিখে ১৯৬ সংখ্যায় এমপি জয়নালের ধর্ম শ্যালকের দাপট শিরোনামে আরোও একটি প্রতিবেদন ছাপিয়ে মামলার বাদীর চরিত্রহরন সহ রাজনৈতিক সমাজিক ও ব্যবসায়ীক ক্ষতি সহ মান সন্মানের ক্ষতি সাধন করে। যার আনুমানিক পরিমান হবে ৩০ লক্ষ টাকা। মামলার আরজিতে আরোও উল্লেখ রয়েছে যে,মামলার বাদী একজন ধর্মপ্রাণ মসুলমান। ইসলাম ধর্মে শ্যালক কোন বিধান নেই। পাশাপমি এমপির সাথে তার আত্নীয়তার নয়, রাজনৈতিক পরিচয়। এছাড়াও মামলার ৪ ও ৫ নং আসামী বিভিন্ন সময়ে মুঠোফোন ও ল্যান্ডফোনের মাধ্যমে হত্রা হুমকি দেয়। যার কারনে মামলার বাদী আক্কাছ আলী ইতিপূর্বে সদও থানায় একটি জিডি করে। যার নং-১০৪৭,তাং-৩০-০৮-১০।

Facebook Comments
Social Media Sharing
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.