Templates by BIGtheme NET
Home / বিনোদন / ভারতের মডেল তারকা আসিফ আজিম ।। মায়ের সাথে পালন করলো নববর্ষ

ভারতের মডেল তারকা আসিফ আজিম ।। মায়ের সাথে পালন করলো নববর্ষ

Meherpur-Model Star Asif Azim-Pic-1তুহিন আরন্য/ ইয়াদুল মোমিন:
এবার পহেলা বৈশাখের আনন্দ ভাগাভাগি করতে ভারতবর্ষের মডেল তারকা এদেশের ছেলে আসিফ আজিম নিজ গ্রাম মেহেরপুরের আমঝুপিতে মায়ের সাথে কাটালো। দেশে এলেই মায়ের সাথে দেখা না করে কখানো যাননি তিনি। সারাদিন নিশ্চিন্ত একান্তে সময় কাটান ভাই, বোন, ভাগনে ভাতিজী সহ পরিবারের সদস্যদের সাথে। আর মাকে সময় দেন। তাই বহিরাগত কারো সাথে দেখা করেন না। সারারাত গল্পগুজব করে মধ্যরাতে ঘুমাতে যান। তাই মায়ের কাছে নিজ গ্রামের বাড়িতে এলে বেলা করে ঘুম থেকে ওঠেন। মেহেরপুর নিউজ’র অনুরোধে সকাল ৯ টায় সময় দেন সাক্ষাতের। এবং পরিবারের সদস্যদের বলেন সকলে মিলে সম্মিলতি ছবির জন্য প্রস্তুত নিতে।
আমঝুপি গ্রামের অত্যান্ত বর্ণাঢ্য পরিবারের আসিফ আজিমের জন্ম। যে গ্রামের ১৮ শ বিঘা জমির মালিক ছিলেন তাঁর পূর্ব পুরুষ। তাঁদের আত্মীয় স্বজনদের বসবাস পুরো গ্রাম জুড়ে। সাক্ষাৎকালে আসিজ আজিমের মা রোজী আজিম বলেন (৭০) সময়ের বিবর্তনে অনেক সম্পত্তি এখনও হাতছাড়া হয়ে আছে। ২০০৭ সালে স্বামী আহসানুল আজিম ক্যান্সার রোগে মৃত্যুবরণ করে। তাঁর আগ থেকেই অনেক কস্টে অভাবের ভিতর দিয়ে চলার একপর্যায়ে আসিফ ভারতে পাড়ি দেয়। তাঁরা ৪ ভাই, তিন বোন। ছোট বেলায় সারাদিন গাছে ওঠে, সাতাঁর কেটে দাপিয়ে বেড়াতো। খুব জেদী, খাওয়াতে অমনোযোগী থাকলেও পড়াশুনায় ভালো ছিলো। তাই ইচ্ছা ছিলো ছেলে পড়াশুনা শেষ করে দেশেই কিছু করবে। কিন্তু এখন ছেলে শুধু দেশেই নয় বিদেশেও সুনাম অর্জন করেছে,  Meherpur-Model Star Asif Azim-Pic-2দেশ বিদেশের গণমাধ্যমে যখন সাক্ষাৎকার দেখি তখন গর্বে বুকটা ভরে যায়। আনন্দে ছোটে পানি আসে। অতীতের কষ্টের কথা ভেবে গোপনে চোখের পানি মুছি।
মায়ের ইচ্ছা এ ছেলের বিয়ে যত দ্রুত সম্ভব দেশে হবে। এজন্য মধ্যবিত্ত পরিবারের শিক্ষিত সুন্দরী ছেলের বউ চান তিনি। ১লা বৈশাখ উপলক্ষ্যে সকালে ছেলে পরিবারের ৩০ সদস্যকে নিয়ে পান্তা ভাত, ইলিশ, আলু ভর্তা, ডাল ভর্তা, বেগুন ভর্তা, মাছের মুড়ি, আচার, বেগুনী দিয়ে ভাত খেয়েছে। তাছাড়া ভাত এবং তরকারীতে ঝাল একেবারেই খায় না। মায়ের সাথে সময় কাটাতে সময় পেলেই দেশে আসে। আর সারাক্ষণ মা এটা খাবো- ওটা খাবো বায়না তোলে।
এ সময় আসিফ আজিম বলেন, দেশ আমার নাড়ি। তাই দেশে এলেই মায়ের হাতের সব রান্না খেতে, মাকে সময় দেওয়া আর মায়ের মুখে লিটন ডাক শুনতে তাঁর খুবই ভালো লাগে। তাই মডেলিংয়ে বিশ্বের যেখানেই থাকি মায়ের সাথে কথা বলি। গ্রামে মায়ের রান্না খেয়ে ওজন বাড়ে। সেটা মুম্বাই যেয়ে অতিরিক্ত জীম করে পুষিয়ে নিই। তাছাড়া জমিজমা নিয়ে কিছু জটিলতা মাঝেমধ্যে তাঁকে মাঝেমধ্যে দু:শ্চিতায় ফেলে। বড় বোন কাজল রেখা বলেন, এমন উঁচু মনের ভাই ৯০ ভাগ বোনের ভাগ্যে হয়তো জোটেনি। তাই পরিবারের সবাই ভাইয়ের বাড়ি আসা নিয়ে উন্মুখ হয়ে থাকি।
ভাগনে লামিয়া সুলতানা তিথি বলেন, মামার সুবাদে ভারতে উচ্চশিক্ষা গ্রহন করছি। ২০ বছর পর পরিবারের সবাইকে নিয়ে বৈশাখী আনন্দ করতে মামা ছুটে এসেছে। সব মিলিয়ে মামা আসিফ আজিম এখন সকলের মনের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে ওঠেছে। গত ১২ এপ্রিল আসিফ আজিম নিজ গ্রামে আসেন। ১৫ এপ্রিল তিনি মুম্বাইয়ে ফিরে যান মহেশ ভাট প্রয়োজিত একটি চলচিত্র কাজে অংশ নিতে।

Facebook Comments
Social Media Sharing
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful