Templates by BIGtheme NET
Home / রাজনীতি / মেহেরপুরের গাংনীতে বিদ্রোহী প্রার্থীর কর্মীদের ধাওয়ায় আ’লীগ প্রার্থী আশ্রয় নিলেন এক বাড়িতে

মেহেরপুরের গাংনীতে বিদ্রোহী প্রার্থীর কর্মীদের ধাওয়ায় আ’লীগ প্রার্থী আশ্রয় নিলেন এক বাড়িতে

12111111মেহেরপুর নিউজ, ১৭ ডিসেম্বর:
মেহেরপুরের গাংনী পৌরসভা নির্বাচনে প্রচার চলাকালীন সময়ে আ’লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর মহিলা কর্মীদের লাঞ্চিত করার অভিযোগে বর্তমান মেয়র ও আ’লীগ প্রার্থী আহমেদ আলীর প্রচার দল হামলার শিকার হয়েছেন। এ সময় প্রান ভয়ে আহমেদ আলী সহ তার কর্মীরা একটি বাড়ির মধ্যে আশ্রয় নেয়। ঘটনার সময় আশরাফুল ইসলামের ক্ষুব্ধ সমর্থক লাঠি শোঠা নিয়ে আহমেদ আলীর এক কর্মীর মোটর সাইকেল ভাংচুর করে এলাকা ত্যাগ করে। পরে পুলিশের সহায়তার অবরুদ্ধ আহমেদ আলী ও তার কর্মীরা বাইরে বেরিয়ে আসেন ।
গতকাল বৃহস্পতিবার বিকাল ৪ টার দিকে গাংনী পৌরসভার পূর্ব মালসাদহ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার বিকালে গাংনী পৌরসভার পূর্ব মালসাদহ এলাকায় আশরাফুলের কিছু মহিলা কর্মী প্রচার শুরু করে। একই সময়ে আ’লীগ প্রার্থী আহমেদ আলীসহ তার কর্মীদের নিয়ে একই এলাকায় প্রচার শুরু করে। এ সময় উভয় পক্ষের মধ্যে বাক্য বিনিময় হয়। খবর পেয়ে একই এলাকায় থাকা আশরাফুল সহ তার কর্মীরা কয়েকটি মোটরসাইকেল সহকারে গিয়ে লাঠি শোঠা নিয়ে আহমেদ আলী ও তার কর্মীসমর্থকদের ধাওয়া করে। এ সময় প্রাণ ভয়ে আহমেদ আলীসহ তার কর্মীরা একটি বাড়িতে আশ্রয় নেয়। তখন আশরাফের লোকজন সেই বাড়ি লক্ষ্য করে ইট পাটকেল নিক্ষেপ করে এবং এলাকায় দুটি মোটর সাইকেল এর উপর হামলা চালালে একটি ক্ষতিগ্রস্থ হয়। এ সময় পেশাগত কাজে ঘটনাস্থলে গেলে দুই সাংবাদিকের উপর হামলা চালানোর চেষ্টা করে আশরাফ ভেন্ডারের কর্মীরা।
Meherpur pic-2 55555পরে খবর পেয়ে গাংনী থানার এ এস আই রেজাউল করিম সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌছালে তাদের সহযোগীতায় অবরুদ্ধ আহমেদ আলীসহ কর্মীরা বাইরে বের হয়ে আসেন। পরে নির্বাচন আচরণ বিধিতে দায়িত্বপ্রাপ্ত নির্বাহী ম্যাজেষ্ট্রট রাহাত মান্নান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
এর পরপরই আহমেদ আলীসহ তার কর্মীরা বিদ্রোহী প্রার্থী আশরাফুল ইসলামের গ্রেফতারের দাবিতে শহরের বিক্ষোভ মিছিল করে।
এ ব্যাপারে আশরাফুল ইসলাম বলেন, এর আগেও বিভিন্ন এলাকায় নির্বাচনী প্রচারকালে আ’লীগ প্রার্থী মেয়র আহমেদ আলীর কর্মীরা তার কর্মীদের বিভিন্ন ভাবে লাঞ্চিত করে মোটরসাইকেল ভাংচুর করে এবং নারী কর্মীদের অবরুদ্ধ করে রাখে। এ ব্যাপারে রিটার্নিং অফিসারের কাছে লিখত অভিযোগ করা হলেও তারা কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। একই ভাবে বৃহস্পতিবার বিকালে পূর্বমালসাদহ গ্রামে তার মহিলা কর্মীরা ভোটের প্রচারণা করতে গিয়ে আবারো মেয়র আহেমদ আলীর কাছে লাঞ্চিত হন। এ ঘটনার জের ধরে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়।
তবে আহমেদ আলী বলেন, আমি শান্তিপূর্নভাবে পূর্ব মালসাদহ এলাকায় প্রচারনা চালাতে গেলে তারা অতর্কিত ভাবে তাকে সহ তার কর্মীদের উপর হামলা চালায় আশরাফুল ইসলামমের সমর্থকরা। তাদের হামলায় এক কর্মীর মোটরসাইকেল ভাংচুর হয়েছে।
রিটার্নিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন অফিসার মো: রোকনুজ্জামান বলেন, ¯^তন্ত্র মেয়র প্রার্থী আশরাফুল ইসলামের অভিযোগ পেয়ে পুলিশ ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটকে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলা হয়েছে। তবে বৃহস্পতিবার বিকালে আহমেদ আলীর উপর হামলার ঘটনা তিনি শোনেনি বলে জানিয়েছেন।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে, গাংনী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আকরাম হোসেন বলেন, উত্তেজনার কথা শুনে পুলিশ পাঠালে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসে। তবে হামলার খবর বা মোটরসাইকেল ভাংচুরের ঘটনা তিনি জানেন না বলে জানিয়েছেন।

Facebook Comments
Social Media Sharing
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.