Templates by BIGtheme NET
Home / ইতিহাস ও ঐতিহ্য / মেহেরপুরের বাগুদেওয়ান দরবার শরীফ এখন স্মৃতি !

মেহেরপুরের বাগুদেওয়ান দরবার শরীফ এখন স্মৃতি !

উচ্ছেদের পর দরবারের চিত্র

উচ্ছেদের পর দরবারের চিত্র

মেহেরপুর নিউজ,১১ ফেব্রুয়ারী:
মেহেরপুর সদর উপজেলার বুড়িপোতা ইউনিয়ন পরিষদের কাছে উচ্ছেদ করা শাহসুফী বাগু দেওয়ানের দরবার শরীফ এখন স্মৃতি । দরবারের কেটে ফেলা গাছ গোভীপুর গ্রামবাসীর উদ্যোগে নিলামের মাধ্যমে ৩০ হাজার টাকায় বিক্রি করা হয়েছে। মঙ্গলবার বিকালে গোভীপুর গ্রামবাসী নিলাম ডাকলে সর্বোচ্চ ৩০ হাজার টাকা মূল্য দিয়ে কাঠ ব্যবসায়ী মজিবর রহমান সেগুলো কিনে নেন। তবে ঘটনার ২৪ ঘন্টার পেরিয়ে গেলেও থানায় কেউ অভিযোগ দেননি বা কোনো মামলা হয়নি বলে জানা গেছে।
বুধবার সকালে দরবার শরীফ প্রাঙ্গনে গিয়ে দেখা যায়, প্রায় ৭ বিঘা জমি নিয়ে গড়ে ওঠা বাগুদেওয়ানের দরবার শরীফ এখন স্মৃতি। ক্ষোভের রোষানলে পড়ে দাড়িয়ে আছে গাছের গুড়ি গুলো। রওজা শরীফটিকে ভেঙ্গে মাটিতে নামিয়ে দেওয়া হয়েছে। গুড়ি গুলো কেটে আলগামনে করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে পাশের শহরের কোনো কাঠ ফাড়াই করা স’মিলে।
নিলামে গাছ কেনা ব্যবসায়ী মজিবর রহমান বলেন, সর্বোচ্চ মূল্য দিয়ে কাঠগুলো কিনেছি। ১২ জন শ্রমিক লাগানো হয়েছে সকল গাছগুলো গোছানোর জন্য।
মেহেরপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবিব বলেন, বাগুদেওয়ানের দরবার শরীফ উচ্ছেদের ঘটনায় কেউ কোনো অভিযোগ করেননি। তবে অভিযোগ করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।

দরবারের পূবের চিত্র ( ফাইল ফটো )

দরবারের পূর্বের চিত্র ( ফাইল ফটো )

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে মাদকের আখড়ার অভিযোগ তুলে সদর উপজেলার গোভীপুর গ্রামবাসী দরবার শরীফে গিয়ে দরবারের খাদেমসহ ভক্তদের বের করে দিয়ে ভাংচুর শুরু করে। পরে তারা অগ্নিসংঙোগ করে এবং সেখানে থাকা বিভিন্ন প্রজাতির হাজার খানেক গাছ কেটে গুড়িয়ে ফেলে। বেলা ১১ টা পর্যন্ত তান্ডব চালিয়ে বাগুদেওয়ানের রওজাও সহ সমস্থ স্থাপনা ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেয়।
গ্রামবাসীরা অভিযোগ করে বলেন, দরবার শরীফের নামে এখানে নিয়মিক মাদকসেবীদের আড্ডা বসত। এখান থেকে এলাকার তরুণ বিপথে যাচ্ছিল। এ কারণে এখান থেকে তাদের বারবার সড়ে যাওয়া তাগিদ দেওয়া হয়।
গ্রামবাসীদের অভিযোগের জবাবে দরবারের খাদেম আলমগীর হোসেন (আলম পাগলা) বলেন, দরবারে প্রতিদিনই ধর্মীয় অচার অনুষ্ঠান পালন করা হয়। সেখানে সামা কাওয়ালী, ওয়াজ শরীফ, জিকির আজগার হয়ে থাকে। মিথ্যা অভিযোগে তারা মূলত জমি দখলের জন্য দরবার শরীফ ভাংচুর করেছে।
জানা গেছে, তিন’শ বছর আগে ইরাক থেকে এসে সুফী বাগু দেওয়ান ধর্মপ্রচারের জন্য ওই এলাকায় এসে দরবারটি গড়ে তোলেন। তার মৃত্যুর পর র ভক্তরা ওখানেই তার রওজা গড়ে তোলে। দেশ স্বাধীনের পর বাগুেেদওয়ানের রওজাটিকে সংরক্ষনের জন্য পাকা ভিত্তি গড়ে তোলা হয়। পরে ২০০৮ সাল থেকে সেখানে বিভিন্ন আচার অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হত।
আর এস রেকর্ডের ৪৪৪ এবং ৪৪৫ দাগে ২ একর ৩৬ শতাংশ জমি হযরত শাহসুফীর বাগুদেওয়ান দরবার শরীফের সেক্রেটারীর নামে অন্তভুর্ক্ত রয়েছে। বাংলা একাডেমী থেকে প্রকাশিত বাংলাদেশ লোকজ সংস্কৃতি গ্রন্থ মেহেরপুর এ শাহসুফী বাগুদেওয়ানের দরবার শরীফের নাম অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

Facebook Comments
Social Media Sharing
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.