Templates by BIGtheme NET
Home / বিশেষ প্রতিবেদন / মেহেরপুরে অ্যানথ্রাক্স ভীতি চরমে॥ মুরগির বাজারের আগুন,প্রশাসনের হসত্মক্ষেপ জরুরী

মেহেরপুরে অ্যানথ্রাক্স ভীতি চরমে॥ মুরগির বাজারের আগুন,প্রশাসনের হসত্মক্ষেপ জরুরী

মেহেরপুর নিউজ ২৪ ডট কম,মহাসিন আলী,১৯ সেপ্টেম্বর:

মেহেরপুরে অ্যানথ্রাক্সের কারনে গরুর মাংস বিক্রি প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে। সেই সুবাদে মুরগি ব্যবসায়ীরা বেশী দামে মুরগি বিক্রি করে চলেছে। বাজার নিয়ন্ত্রনে প্রশাসনের কোন হসত্মক্ষেপ না থাকায় মুরগি ব্যবসায়ীরা ক্রেতাদের জিম্মি করে বেশী দামে মুরগি বিক্রি অব্যাহত রেখেছে। এতে ক্রেতাদের নাভিশ্বাস উঠে পড়েছে।

সমপ্রতি দেশের বিভিন্ন জেলার ন্যায় মেহেরপুর জেলার গাংনী উপজেলার বিভিন্ন গ্রাম-গঞ্জে প্রায় একশ’ অ্যানথ্রাক্স রোগি চিহ্নিত হওয়া ছাড়া বেশ কয়েকটি গরু মরে যাবার ঘটনায় মেহেরপুর জেলাবাসীর মধ্যে অ্যানথ্যাক্স ভীতি ছড়িয়ে পড়েছে। ঈদের আগে প্রশাসনের পক্ষ থেকে অ্যানথ্রাক্স মুক্ত গরুর মাংস খাওয়া যাবে বলে ঘোষনা দিলে মেহেরপুরের সাধারন মানুষ পরীক্ষিত গরুর মাংস ভয়ে ভয়ে হলেও খায়।  মেহেরপুরের সাধারন মানুষ ধারণা করেছিল পরীক্ষিত গরুর মাংস খেলে মুরগির বাজারের বৃদ্ধি পাওয়া আগুন কিছুটা হলেও কমে আসবে। কিন্তু ঈদের সময় পরীক্ষিত জবাই করা গরুর মাংস খেয়ে মুজিবনগরের বিশ্বনাথপুরে এক বৃদ্ধা অ্যানথ্রাক্স রোগে আক্রানত্ম হওয়ায় সাধারন মানুষের মধ্যে অ্যানক্রাক্স ভীতি বহুগুনে বেড়ে গেছে। মেহেরপুরের মানুষ গরুর মাংসের প্রতি সম্পূর্ন ভাবে আগ্রহ হারিয়েছে। এতে মেহেরপুরের কসাইরা বিপাকে পড়েছে। পরীক্ষিত  গরুর জবাই করা মাংস বলে সনদপত্র দেখিয়েও ক্রেতাদের আকৃষ্ট করতে পারছে না। শনিবার এমন এক পরিস্থিতর শিকার হয়েছে মেহেরপুর জেলা সদরের আশরাফপুর গ্রামর ২জন কসাই। জানা যায়, ওই গ্রামের মৃত ইন্নাস সর্দ্দারের ছেলে মহিদুল ও মৃত হিম্মত আলীর ছেলে বাবুল প্রায় ৮০ হাজার টাকায় একটি ষাড় কেনে এবং  গ্রামে জবাই করে মাংস বিক্রি করতে পারেনি। বাধ্য হয়ে কিছু মাংস আত্মীয় স্বজনদের মধ্যে বিনামূল্যে বিতরন করেছে এবং বাকি মাংস ফ্রিজের মধ্যে রেখে দিয়েছে। এসব সুযোগ কাজে লাগাচ্ছে মেহেরপুরের মুরগি ব্যবসায়িরা। গতকালও মেহেরপুরের মুরগির বাজার ঘুরে দেখা গেছে দেশি মুরগি ২শ’ ৪০ টাকা থেকে আড়াইশ’ টাকা, সোনালী মুরগি ২শ’ ২০ টাকা থেকে ২শ’ ৩০ টাকা, পোল্টি মুরগি একশ’ ৪০ টাকা থেকে দেড়শ’ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। ঈদের এক সপ্তাহ পরও মুরগির দাম না কমায় ক্রেতাদের মধ্যে উদ্বেগ বৃদ্ধি পেয়েছে। তারা মনে করেন প্রশাসনের হসত্মক্ষেপ ছাড়া বাজারে মুরগির দাম কমবে না।

Facebook Comments
Social Media Sharing
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.