Templates by BIGtheme NET
Home / জাতীয় ও আন্তর্জাতিক / মেহেরপুরে জেলা আনছার কমান্ড্যান্ট আব্দুর রশিদের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানীর অভিযোগ:: বদলি দাবি (ভিডিও সহ)

মেহেরপুরে জেলা আনছার কমান্ড্যান্ট আব্দুর রশিদের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানীর অভিযোগ:: বদলি দাবি (ভিডিও সহ)

মেহেরপুর নিউজ, ১৪ ডিসেম্বর:
মেহেরপুরে মহিলা আনছার সদস্যদের শ্লীলতা হানি করার অভিযোগ উঠেছে জেলা আনছার ও ভিডিপি কমান্ড্যান্ট আব্দুর রশিদের বিরুদ্ধে।
এ ঘটনায় শুক্রবার সকাল থেকে জেলা আনছার ও ভিডিপি কার্যালয়ে তার অপসারণ ও শাস্তি দাবি করে বিক্ষোভ করে আনছার সদস্যরা। বিষয়টি জানতে পেরে সাংবাদিকরা কার্যালয়ে গেলে তাদের ভিতরে প্রবেশ করতে না দিয়ে মুল ফটকের বাহিরে দুই ঘন্টা দাড় করিয়ে রাখা হয়।
পরে বিক্ষুব্ধ আনছার সদস্যদের নিবৃর্ত্ত করতে পুলিশকে খবর দেন অভিযুক্ত জেলা কমান্ড্যান্ট। খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শেখ জাহিদুল ইসলাম ও সদর থানার ওসি রবিউল ইসলাম ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি দেখে উভয় পক্ষের সাথে কথা বলে জেলা কমান্ড্যান্ট এর বদলির ব্যাপারে আশ্বস্ত করেন।
নিগৃহিত দুই আনছার মহিলা সদস্য অভিযোগ করে বলেন, তাদের দুই জনকে আলাদা আলাদা ভাবে অফিস রুমে ডেকে জেলা কমান্ড্যান্ট আব্দুর রশিদ তাদের কুপ্রস্তাব দেয় এবং শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করে। পরে বিষয়টি নিয়ে দলনেতাদের জানালে তাঁরা এক হয়ে স্যারের বিচার চায়।
সদর উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়ন মহিলা আনসার বাহিনীর দলনেতা রহিমা খাতুন জানান, আমাদের গ্রাম-গঞ্চে কাজ থাকে। আনসার প্রশিক্ষন ও নির্বাচন উপলক্ষে ইউনিয়ন থেকে মেয়ে দেরে নিয়ে এনে এখানে ট্রেনিং দেওয়া হয়। জেলা কমান্ড্যান্ট রশিদ স্যার আমাদের বলে বেশি বয়সের মেয়েদের নিয়ে আসবা না , কম বয়সের মেয়েদের বাছাই করবা। এসব মেয়ে দের স্যার অফিসে ডেকে তাদের মোবাইল ন¤^র নেন। তাদের সাথে খারাপ ব্যবহার করেন এবং কুপ্রস্তাব দেন। এ বিষযে আমরা কিছু বলতে গেলে আমাদের চাকরী থাকবে না বলে হুমকি দেন। এই নির্বাচনে সরকার মেহেরপুর থেকে ১২শ লোক নেবে ভোট ডিউটির জন্য এর মধ্যে ৪০০ মেয়ে থাকবে। যদি এই রকম ব্যবহার করে তাহলে তো কোন মেয়ে আর আসতে চাইবে না।
কুতুবপুর ইউনিয়ন পুরুষ আনসার বাহিনীর দলনেতা আবুল কাশেম জানান, রশিদ স্যারের চারিত্রিক ব্যবহার ভালো না। আমাদের সাথেও রাফ ব্যবহা করেন। মেয়েদের গায়ে হাত দেয় এর প্রমান আমাদের কাছে আছে ।

পিরোজপুর ইউনিয়নের পুরুষ আনসার বাহিনীর দলনেতা মিজানুর রহমান জানান, আব্দুর রশিদ স্যার গত বৃহস্পতিবার মেয়েদের সাথে খারাপ ব্যবহার করেছে। শুক্রবার ওই দুটি মেয়ে আমাদের সাথে কথা বলতে গিযে কেঁদে ফেলে। এই জন্য আমরা সকলে মিলে প্রতিকার করার জন্য স্যারের কাছে গিয়েছিলাম। তিনি আমাদের সাথে খারাপ ব্যবহার করেন। আমরা তার বদলি সহ শাস্তির দাবি করছি।
পৌরসভার ৬ ন¤^র ওয়ার্ড দলনেতা সানোয়ার হোসেন বলেন, স্যার মেয়েদের রুমের ভিতর ডেকে নিয়ে শরিরে হাত দিয়ে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেছে। এরকম অভিযোগ পেয়ে আমরা স্যারকে বলি যে স্যার এরকম কেন বারবার আপনার নামে অভিযোগ আসছে? এ ঘটনায় আমরা আন্দোলন করার কথা বললে এএসপি ও থানার ওসিকে ডেকে নেন। পরে এএসপি স্যারকে আমরা ঘটনাটি জানায়।
সানোয়ার আরো অভিযোগ করে বলেন, এই রশিদ স্যার এর আগেও কয়েকবার মেয়েদের সাখে হেনস্থা করেছেন। কিছু বলতে গেলে হুমকি দিয়ে তিনি বলেন আমি তোমাদের মেহেরপুরের সবচেয়ে বড় অফিসার। আমার কেউ কিছু করতে পারবে না।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত জেলা আনসার ও ভিডিপি কমান্ড্যান্ট আব্দুর রশিদ সাহেব প্রথমে সাংবাদিকদের ভিতরে প্রবেশ করতে না দিলেও পরে যাওয়ার অনুরোধ করেন। পরবর্তিতে সাংবাদিকরা না যেতে চাইলে তিনি কার্যালয়ে গেটে এই ঘটনাটি অস্বীকার করেন। তবে কথা বলার এক পর্যায়ে অনুতপ্ত বলে পূর্বের একটি ঘটনা স্বীকার করেন।
তবে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শেখ জাহিদুল ইসলাম সাংবাদিকদে বলেন, খবর পেয়ে আনছার ও ভিডিপি অফিসে আসি। সেখানে অভিযোগকারী , আনছার দলনেতা ও সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলে ঘটনার প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গেছে বলে তিনি জানান। বিষয়টি নিয়ে উর্ধতন কতৃপক্ষের সাথে কথা হয়েছে। জেলা কমান্ড্যান্ট এর অপসারণের বিষয়টি উর্ধতন কর্তৃপক্ষ নিশ্চিত করেছেন বলে তিনি জানান।

Facebook Comments
Social Media Sharing
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.