Templates by BIGtheme NET
Home / ফিচার / মেহেরপুরে টিসিবি ডিলারদের পণ্য উত্তোলণে আগ্রহ নেই ।। ডিলারদের লাইসেন্স বাতিল হচ্ছে !

মেহেরপুরে টিসিবি ডিলারদের পণ্য উত্তোলণে আগ্রহ নেই ।। ডিলারদের লাইসেন্স বাতিল হচ্ছে !

Banner-01মেহেরপুর নিউজ, ২৫ জুন:
মেহেরপুরে টিসিবি’র (ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ) কোনো পণ্য চোখে দেখছে না ভোক্তারা। জেলায় তালিকাভ’ক্ত ১২জন ডিলার থাকলেও এ পর্যন্ত কোন ডিলার টিসিবি পণ্য উত্তোলন করেননি। টিসিবি ডিলারের ঘরে পণ্য না পেয়ে বাধ্য হয়ে অধিক মূল্যে খোলাবাজার থেকে পণ্য কিনতে বাধ্য হচ্ছেন ক্রেতারা। ফলে সরকারী নির্দেশনা মোতাবেক পণ্য উত্তোলন না করায় মেহেরপুরের ডিলারদের লাইসেন্স বাতিল করতে যাচ্ছে টিসিবি।
টিসিবি সূত্রে জানাযায়, মেহেরপুর সদর, গাংনী ও মুজিবনগর উপজেলায় টিসিবি‘র পন্য বিক্রির জন্য ডিলার রয়েছে ১২ জন। ডিলারদের মাঝে ৫০০ কেজি চিনি, মুশুর ডাল ২৫০ কেজি, সয়াবিন ৩০০ লিটার ও ছোলা ৫০০ কেজি সরবরাহ করার কথা।
জেলা প্রশাসক পরিমল সিংহ ডিলারদের এসব পণ্য টিসিবি খুলনা ডিপো থেকে উত্তোলন করে আপদকালীন পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য নির্দেশ দেন। তারপরও কিন্তু কোন ডিলার এ পর্যন্ত টিসিবির পণ্য উত্তোলন করেনি।
সদর উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের টিসিবি ডিলার ফারুখ হোসেন জানান, জেলার কোন ডিলার কোন পণ্য উত্তোলন করেননি। তিনি জানান মেহেরপুরের প্রতিটি ডিলারের জন্য টিসিবি খুলনা ডিপো থেকে তাদের ২শ কেজি চিনি, ১শ কেজি মশুর ডাউল, ১শ কেজি তেল ও ১শ কেজি ছোলা বরাদ্দ দেবার কথা জানায়। যা পরিবহণ খরচ করে খুলনা থেকে এনে নির্ধারিত দরে বিক্রি করে আসল টাকা ফিরে আসবেনা। এজন্য তারা কোন ডিলারই পণ্য উত্তোলন করেননি।
এ ব্যাপারে টিসিবি’র খুলনা আঞ্চলিক কার্যালয়ের উপ-উর্ধতন কার্যনির্বাহী রবিউল মোর্শেদ কালের বলেন, বারবার তাগিদ দেয়া সত্তেও মেহেরপুর থেকে কোনো ডিলার পণ্য উত্তোলন করেননি। তারা পণ্য উত্তোলণ না করায় ঈদের পরে তাদের ডিলার শিপ বাতিল করার ব্যবস্থা গ্রহল করবেন বলে তিনি জানান। তিনি আরো বলেন, পণ্য উত্তোলন করে আসল টাকা ফিরবে না একথার কোনো ভিত্তি নাই। মেহেরপুরের জন্য প্রতি কেজি পণ্যতে সাড়ে ৬ টাকা করে কমিশন দেয়ার কথা বলা হয়েছে। তারপরও তার কোনো পণ্য উত্তোলন করেননি। তিনি আরো বলেন, মেহেরপুর জেলা প্রশাসকের সাথে তার কথা হয়েছে । মেহেরপুর থেকে ডিলাররা পণ্য উত্তোলন করতে আসবেন। তবুও মেহেরপুর থেকে কোনো ডিলার পণ্য উত্তোলন করেননি।
এদিকে খোলা বাজারে এক কেজি চিনি বিক্রি হচ্ছে ৬০ টাকা, মুসুর ১০০ টাকা, সয়াবিন ৯০টাকা ও ছোলা ৮৬ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। অথচ টিসিবির পণ্যের মূল্য চিনি ৪৮টাকা, মুসুর ৮৯টাকা, সয়াবিন ৮০টাকা ও ছোলা ৭০ টাকা।

Facebook Comments
Social Media Sharing
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful