Templates by BIGtheme NET
Home / বিশেষ প্রতিবেদন / মেহেরপুরে নকল সিগারেট কোম্পানী! কোটি টাকার মালামাল সিজার লিস্ট করে সিলগালা।।মালিক পক্ষ অনুপস্থিত

মেহেরপুরে নকল সিগারেট কোম্পানী! কোটি টাকার মালামাল সিজার লিস্ট করে সিলগালা।।মালিক পক্ষ অনুপস্থিত

মহাসিন আলী:
মেহেরপুরে নকল সিগারেট কোম্পানী সন্দেহে কোম্পানীর কারখানার কোটি টাকার মালামাল সিজার লিস্ট করে কারখানা সিলগালা করে দেয়া হয়েছে। মেহেরপুর জেলা প্রশাসন বৃহস্পতিবার বাতে গোপন সংবাদ পেয়ে মেহেরপুর শহরের উপকণ্ঠের ওই কারখানায় সিলগালা করে দেন। এসময় মালিক পক্ষ উপস্থিত না থাকায় কোস্পানিটির বৈধতা নিয়ে প্রশাসন ও জনগনের মধ্যে মিশ্র-প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করেছে।
জানা যায়, মেহেরপুর শহরের উপকণ্ঠ শহরের দীঘিরপাড়াস্থ বিএলটিসি সংলগ্ন পুরাতন সাবান ফ্যাক্টরিতে নকল সিগারেট তৈরি হচ্ছে এমন গোপন সূত্রে খবর পেয়ে মেহেরপুর জেলা প্রশাসনের সহকারি কমিশনার আবু সাঈদ ও সুজিত কুমার হাওলাদারের নেতৃত্বে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে র‌্যাবের সহযোগিতায় ঘটনাস্থল পৌছান। র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে কারখানার ভেতরে অবস্থানকারী কারখানার ম্যানজারসহ ২০/২৫ জন শ্রমিক পিছন দিক থেকে পালিয়ে যায়। পরে ম্যাজিস্ট্রেট ও র‌্যাব সদস্যরা পাচিল টপকিয়ে ভেতরে প্রবেশ করে সিগারেট তৈরির কারখানা আবিস্কার করেন। এসময় কারখানার ভেতরে বিপুল পরিমান বিশ্বাস ট্যোবাকো’র বিশ্বাস গোন্ড ও তিস্তা সিগারেট, সিগারেটের খালী প্যাকেট, সিগারেটের তামাক, প্যাকেটের গায়ে লাগানোর নকল রাজস্ব টিকেট উদ্ধার করে। ওই সময় পযন্ত কোম্পানির কোন স্বত্বাধিকারীকে পাওয়া না যাওয়ায় কোম্পানির সব মেশিনসহ প্যাকেটজাত করা সিগারেট ও সিগারেট তৈরির কাঁচামাল ও খালী প্যাকেটসহ কারখানার অন্যান্য মালামাল সিজার লিস্ট করে কারখানা সিলগালা করে সেখানে পুলিশ মোতায়েন রাখা হয়।
খবর পেয়ে মেহেরপুরের সহকারি পুলিশ সুপার সাহেদ আকবর খান, ব্যার-৬ গাংনীর ক্যাম্প কমান্ডার  সিনিয়র এ এস পি শেখ জাহিদুল ইসলাম সেখানে উপস্থিত হন।
এদিকে প্রায় ২ ঘণ্টা ধরে মেহেরপুর জেলা প্রশাসন ও র‌্যাব কারখানার মালামাল সিজার লিস্ট ও কারখানায় সিলগালা করে দিলেও সিগারেট কোম্পানিটির মালিক পক্ষকে ওই স্থানে হাজির হতে বা কারো মাধ্যমে বৈধ কাগজ পত্র উপস্থাপন করতে দেখা যায়নি।
এলাকাবাসী জানিয়েছে, ২০০০ সালের আগে শহরের উপকন্ঠ দীঘিরপাড়া নামক স্থানে মেহেরপুর সদর উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান জাতীয় পার্টির (এরশাদ) কেন্দ্রীয় নেতা খন্দকার আমিরুল ইসলাম পালুর ভাই খন্দকার মনিরুল ইসলাম ভ্যাটা সাবান তৈরির কারখানা তৈরি করেন। কিন্তু অল্পদিনের মধ্যে ওই সাবান ফ্যাক্টরি বন্ধ হয়ে যায়। দীর্ঘদিন পড়ে থাকার পর গত রাতে ওই স্থান থেকে নকল সিগারেট কোম্পানির কারখানা আবিস্কার হওয়ায় এলকাবাসী হতবাক হয়েছে। একাধিক ব্যক্তি জানান, পুরাতন সাবান ফ্যাক্টরির মধ্যে অল্প অল্প লোকজনের যাতায়াত থাকলেও সেখানে কি হত তা তাদের জানা ছিল না। আবার অনেকে বলেছেন, বিশ্বাস গোন্ড ও তিস্তা সিগারেট মেহেরপুরে তৈরি হয় কিনা তা তাদের জানা নেই। আবার মেহেরপুরের বাজারে ওই ২ ধরনের সিগারেট বিক্রি হতে দেখা যায় না।
এদিকে কারখানার মূল মালিক খন্দকার মনিরুল ইসলাম ভ্যাটা জানান, তার ওই ফ্যাক্টরি দীর্ঘ সময় বন্ধ থাকার পরে অল্পদিনে জনৈক আব্দুস সালামকে ভাড়া দিয়েছে।

Facebook Comments
Social Media Sharing
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful