Templates by BIGtheme NET
Home / বিশেষ প্রতিবেদন / মেহেরপুরে নয় জন মা’কে সংবর্ধনা দিল পৌরসভা

মেহেরপুরে নয় জন মা’কে সংবর্ধনা দিল পৌরসভা

10ইয়াদুল মোমিন, ০৮ মে:
মোছা: আসমা খাতুন। মেহেরপুর পৌর শহরের তাঁতীপাড়ার রিক্সা চালক নজরুল ইসলামের স্ত্রী। পেশায় গৃহিনী। ৪ সন্তানের অভাবের সংসার। এর মধ্যে একটি ছেলে প্রতিবন্ধী। সংসারে অভাবের বোঝা সামলিয়ে বড় ছেলে আক্তারুল ইসলামকে লেখাপড়ি করিয়েছেন। সে এখন ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরেজী বিভাগে মাষ্টার্সে লেখাপড়া করছে। একমাত্র মেয়েটি মেহেরপুর সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৮ম শ্রেণীতে পড়ে।
মোছা: জিন্না খাতুন। স্বামী মৃত নছর শেখ। মেহেরপুর পৌর শহরের গার্লস স্কুল পাড়ার বাসিন্দা। দুই ছেলের মা। স্বামী মারা যাওয়ার পর থেকে সেলাই মেশিনের কাজ করে সংসার চালিয়ে ছেলে দুটিকে লেখাপড়া করিয়েছেন। বড়ছেলে হয়েছে মেকানিক ইঞ্জিনিয়ার আর ছোট ছেলে পড়ছেন কুষ্টিয়া পলিটেকনিক কলেজে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে ।
রবিবার বিকালে মেহেরপুর পৌরসভার উদ্যোগে পৌরসভার কমিউনিটি সেন্টারে বিশ্ব মা দিবস উপলক্ষে আসমা খাতুন ও জিন্না খাতুনের মত মেহেরপুর পৌর এলাকার এরকম দরিদ্র ৯ জনকে মাকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। ক্রেষ্টসহ সংবর্ধনায়তাদের দেয়া নগদ ১০ হাজার করে টাকা, একটি করে ছাতা, একটি করে জামদানি শাড়ি।
Meherpur, Mother Celibration Picনয় জন মায়ের মধ্যে বাকি ৭জন হলেন: মেহেরপুর দিঘীরপাড়ার রশিদা খাতুন, ভুমি অফিস পাড়ার আক্তার বানু, মিয়া পাড়ার কহিনুর বেগম, মন্ডলপাড়ার ফজিলা খাতুন, ফুলবাগানপাড়ার ফুলজান বিবি, কাঁলাচাদপুরের রহিমা খাতুন, ও মল্লিকপাড়ার রাহেলা খাতুন।
একই অনুষ্ঠানে মেহেরপুর পৌরসভা থেকে দর্জি প্রশিক্ষন নেয়া ১০ দরিদ্র মহিলাকে দেয়া হয় একটি করে সেলাই মেশিন। এছাড়া মেহেরপুর সরকারী বালিকা বিদ্যালয় ও মেহেরপুর মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের ১৫২ জন ছাত্রীকে দেয়া একটি স্কুলে যাওয়ার জন্য একটি করে ছাতা, ডিকশনারি , একটি মগ ও একটি করে ব্যাগ।
1233মেহেরপুর পৌর মেয়র মোতাচ্ছিম বিল্লাহ মতুর সভাপতিত্বে মায়েদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক পরিমল সিংহ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার হামিদুল আলম। অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ২ নং ওয়ার্ডের পৌর কাউন্সিলর আল মামুন, পলাশিপাড়া সমাজ কল্যন সমিতির নির্বাহী পরিচালক মোশাররফ হোসেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক পরিমল সিংহ বলেন-মায়েদের কাজকে বাবার কাজের মত আমাদের সমাজে মূল্যায়ন করা হয় না। যদি মূল্যায়ন করা হত তাহলে বোঝা যেত মায়েদের কাজের মূল্য কত। কারণ একজন মা ই পারেন তার সন্তানকে সঠিক শিক্ষা দিয়ে মানুষ করে তুলতে। মেহেরপুর পৌরসভার এই ব্যাতিক্রম আয়োজন ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, নানা সমস্যার মাঝে থেকেও এসকল দরিদ্র মায়েরা খেয়ে না খেয়ে তাদের সন্তানকে মানুষ করে গড়ে তুলেছেন। সেই সকলমা সহ বিশ্বের সকল মাকে শ্রদ্ধা জানাই।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে পুলিশ সুপার হামিদুল আলম বলেন- নানা বাধা দূর করে যে সকল মায়েরা ছেলে মেয়েদের সুশিক্ষিত করে গড়ে তোলেন সেই সকল মাকে রত্মগর্ভা মা বলা হয়। বিশ্ব মা দিবসে এ সকল রত্মগর্ভা মাকে শ্রদ্ধা জানাই।
মেহেরপুর পৌর মেয়র আলহাজ্ব মোতাচ্ছিম বিল্লাহ মতু বলেন- মেহেরপুর পৌরসভায় যতদিন আছি তত দিন এ ধরণের সৃষ্টিশিল উদ্যোগ নেয়া হবে।
সংগঠক মানিক হোসেনের সঞ্চালনায় মাকে নিয়ে দুটি গান করে অনুষ্ঠানের সূচনা করে চ্যানেল আই’র ক্ষুদেগানরাজের শিশু শিল্পি উদয়।

Facebook Comments
Social Media Sharing
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful