Templates by BIGtheme NET
Home / আইন-আদালত / মেহেরপুরে পুলিশ ক্যাম্প প্রত্যাহারের প্রতিবাদে চার গ্রামবাসীর বিক্ষোভ

মেহেরপুরে পুলিশ ক্যাম্প প্রত্যাহারের প্রতিবাদে চার গ্রামবাসীর বিক্ষোভ

1111মেহেরপুর নিউজ, ০৮ সেপ্টেম্বর:
মেহেরপুর সদর উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের সন্ত্রাসীদের আশ্রয়স্থল হিসেবে খ্যাত বলিয়ারপুরের অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প প্রত্যাহারের প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেছে ক্যাম্পের সুবিধাভোগী চার গ্রামবাসী।
বৃহস্পতিবার সকালে সদর উপজেলার বলিয়ারপুর, সোনাপুর, শিশিরপাড়া ও গওহরপুরের দু’শতাধিক গ্রামবাসী এ কর্মসূচিতে অংশ গ্রহন করে। গ্রামবাসীরা বিক্ষোভ সহকারে পুলিশ সুপার আনিছুর রহমানের কাছে ক্যাম্পটি প্রত্যাহারের সিধান্ত বাতিল করার দাবি জানান। পুলিশ সুপার বিষয়টি নিয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে তাদের দাবি জানানোর কথা জানান। পরে বিক্ষুদ্ধরা মিছিল সহকারে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্বর অবস্থান করে তাদের দাবি সম্বলিত স্মারকলিপি জেলা প্রশাসক পরিমল সিংহে হাতে তুলে দেন।
কর্মসূচিতে পিরোজপুর ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ড সদস্য আনোয়ারুল ইসলাম, আ.লীগ নেতা ফজলুর রহমান, বলিয়ারপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় কমিটির সভাপতি লিয়াকত সরকার, সদস্য আনারুল ইসলাম, শিক্ষক গোলাম কিবরিয়াসহ ওই ৪ গ্রামের সাধারণ গ্রামবাসীরা অংশ গ্রহন করেন।
222স্মারকলিপিতে জানা গেছে, মেহেরপুরের সদর উপজেলা এবং চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা ও দামড়হুদা উপজেলার সীমান্তবর্তি গ্রাম হচ্ছে বলিয়ারপুর। সন্ত্রাসীরা সন্ত্রাসী কর্মকান্ড সম্পন্ন করে প্রত্যান্ত ওই গ্রামে সহজেই আশ্রয় নিতে পারত। এরই ফলশ্রæতিতে বলিয়ারপুর গ্রামে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড দিন দিন বৃদ্ধি পেয়েছিল। সেই কর্মকান্ডের অংশ হিসাবে ১৯৯৯ সালের ১৫ এপ্রিল স্কুল শিক্ষক, ব্যাংক কর্মকর্তা, সাবেক ইউপি সদস্য ও একজন পল্লী চিকিৎসকসহ একই দিনে ৪ জনকে গুলি ও জবাই করে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা। পরে গ্রামে বাসীর দাবির পেক্ষিতে বলিয়ারপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে একটি অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প স্থাপন করা হয়। পুলিশ ক্যাম্পটি স্থাপনের পর ঐ এলাকার মানুষ শান্তিতে বসবাস করে আসছে। কিছুদিন আগে ক্যাম্পটি স্থায়ী করনের লক্ষে সরকারকে ৬৬ শতক জমি রেজিষ্ট্রি দেয় গ্রামবাসীরা। সম্প্রতি ওই এলাকার প্রাথমিক শিক্ষার মান নিয়ে প্রশ্ন উঠলে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পুলিশ ক্যাম্পটি প্রত্যাহারের সিধান্ত নেওয়া হলে গ্রামবাসীর মধ্যে আবারও আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।
ইউপি সদস্য আনোয়ারুল ইসলাম জানান, ক্যাম্পটি প্রত্যাহার করে এলাকার মানুষের শান্তি নষ্ট হয়ে যাবে। এলাকায় আবারো সন্ত্রাসীদের আনাগোনা বেড়ে যাবে। ফলে সন্ত্রাসী তৎপরতা ঠেকাতে ক্যাম্পটি প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত বাতিল করতে হবে।
এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক পরিমল সিংহ বলেন, যত দ্রুত সম্বভ প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

Facebook Comments
Social Media Sharing
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful