Templates by BIGtheme NET
Home / তথ্য প্রযুক্তি / মেহেরপুরে অবরোধের সময় পুলিশ সুপারের গুলি করা ছবি ধারন করার অভিযোগে দু’সাংবাদিককে আটক ।। কম্পিউটার ও ক্যামেরার ফিতা জব্দ ।। ২৪ ঘন্টা পর ফেরৎ

মেহেরপুরে অবরোধের সময় পুলিশ সুপারের গুলি করা ছবি ধারন করার অভিযোগে দু’সাংবাদিককে আটক ।। কম্পিউটার ও ক্যামেরার ফিতা জব্দ ।। ২৪ ঘন্টা পর ফেরৎ

DSC_1603মেহেরপুর নিউজ ২৪ ডট কম,১৩ ডিসেম্বর:
অবরোধকারীদের বিরুদ্ধে মেহেরপুর পুলিশ সুপারের গুলি করা ছবি ধারনের অভিযোগে বৃহস্পতিবার রাতে দু;সাংবাদিক ও তাদের ব্যবহৃত কম্পিউটারসহ থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। পরে ৫ ঘন্টা দু’সাংবাদিককে সদর থানায় বসিয়ে রেখে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দিলেও তাদেও ব্যবহৃত কম্পিউটার ও ক্যামেরের ফিতা জব্দ করে রাখে পুলিশ।পরে আজ শু্ক্রবার রাত ৯টার দিকে কম্পিউটার ফেরৎ দিয়েছে বলে জানায় অভিযুক্ত সাংবাদিকরা। অভিযুক্ত দু’সাংবাদিক হলো চ্যানেল আই ও যায়যায়দিন প্রতিনিধি গোলাম মোস্তফা এবং মোহনা টিভি প্রতিনিধি ও মেহেরপুর নিউজের সিনিয়র ষ্টাফ রিপোর্টার আবু আক্তার।
মেহেরপুর পুলিশ সুপার একেএম নাহিদুল ইসলাম জানান,অভিযুক্ত সাংবাদিকরা উদ্যোশ্যে মূলকভাবে এসপি’র গুলি করার ছবি ধারন করেছিলো। পরে অভিযুক্ত সাংবাদিককে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।তাদের ব্যবহৃত কম্পিউটার ও ক্যামেরার ফিতা পরীক্ষা শেষে ছেড়ে দেয়া হয়।
এ ঘটনার প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাতে আজ শুক্রবার মেহেরপুর ইলেকট্রনিক মিডিয়া জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন কার্যালয়ে যুগান্তর ও চ্যানেল ওয়ান প্রতিনিধি তোজাম্মেল আযমের সভাপতিত্বে এক জরুরি সভা অনুষ্ঠিত হয়।সভায় উপস্থিত সাংবাদিকরা জানান,বৃহস্পতিবার বিকালে মেহেরপুর সদর উপজেলার বন্দর এলাকায় অবরোধকারীদের সাথে পুলিশ-বিজিবি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় অবরোধকারীরা ইটপাটকেল ও ককটেল নিক্ষেপ করে। পুলিশ বিজিবি পাল্টা গুলি ও টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে। এ সময় স্থানীয় সাংবাদিকরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে  আইন শৃঙ্খলা বাহিনী ওঅবরোধকারীদের সংঘর্ষের ছবি সংগ্রহ করে। পুলিশ সুপারের অভিযোগ সংবাদকর্মীরা উদ্যোশ্যে মূলকভাবে ঘটনাস্থলে এসপি’র গুলি বর্ষনের ছবি ধারন করে তার ব্যাক্তিগত নিরাপত্তাকে বিঘ্নিতকরেছে। অন্যদিকে সাংবাদিকদের দাবি,উদ্যোশ্যেমূলকভাবে নয়,পেশাগত দায়িত্ব পালনের স্বার্থেই সাংবাদিকরা অবরোধকারী ও পুলিশ-বিজিবি’র সংঘর্ষের ছ¦বি  ও সংবাদ ধারন করে। এক্ষেত্রে পুলিশ সুপার নির্দেশে দু’সাংবাদিককে তাদের কম্পিউটারসহ পুলিশ তুলে নিয়ে গিয়ে গনমাধ্যমের স্বাধীনতাকে হরন ও হুমকি দিয়েছে।
সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রথম আলো প্রতিনিধিতুহিন আরন্য,মেহেরপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি আলামিন হোসেন,বাংলা নিউজের প্রতিনিধি জুলফিকার আলী কানন,সময় টিভি প্রতিনিধি মীর সউদ আলী চন্দন, চ্যানেল আই ও যায়যায়দিন প্রতিনিধি গোলাম মোস্তফা এবং মোহনা টিভি’র প্রতিনিধি আবু আক্তার  দেশ তথ্য প্রতিদিন মিজানুর রহমান,বাংলাদেশ প্রতিদিনের প্রতিনিধি মাহবুবুল হক পোলেন,মেহেরপুর নিউজের বার্তা সম্পাদক ইয়াদুল মোমিন, ভি নিউজ প্রতিনিধি মাহবুব  চান্দু, পরিবর্তন প্রতিনিধি সাইদ হোসেন, আমাদের সময় প্রতিনিধি মীর মাহলায়েল আলী শিশির, ফটোসাংবাদিক হাবিবুর রহমান ডিকেন প্রমুখ।
এ ঘটনায় খুলনা বিভাগীয় প্রেসক্লাব ফেডারেশনের চেয়ারপার্সন দৈনিক পূবাঞ্চল পত্রিকার সম্পাদক লিয়াকত আলী,মহাসচিব ও চ্যানেল আই ব্যুরো প্রধান একে হিরুসহ খুলনা প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দরা তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে। তারা বিষয়টি পুলিশের উর্ধতন কতৃপক্ষকে অবগত করে সাংবাদিক ও পুলিশের মধ্যে কাজের সুষ্ঠ পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে উদ্যোগ নিবেন বলে জানান।
এদিকে এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানান মেহেরপুর প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক ও মেহেরপুর নিউজের প্রধান সম্পাদক পলাশ খন্দকার,এটিএন বাংলা ও এটিএন নিউজের মেহেরপুর প্রতিনিধি আতিকুর রহমান টিটু,আরটিভির মেহেরপুর প্রতিনিধি মাজেদুল হক মানিক,বৈশাখীর মেহেরপুর প্রতিনিধি রাশেদুজ্জামানসহ জেলায় কর্মরত সকল সাংবাদিকরা।

Facebook Comments
Social Media Sharing
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.