Templates by BIGtheme NET
Home / আইন-আদালত / মেহেরপুরে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড রুখতে লাঠি, বাঁশি ও টর্চলাইটের প্রতিরক্ষা দল গঠন

মেহেরপুরে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড রুখতে লাঠি, বাঁশি ও টর্চলাইটের প্রতিরক্ষা দল গঠন

20160615_172524মেহেরপুর নিউজ,১৫ জুন:
দেশজুড়ে একের পর এক ভিন্নমতালম্বী খুন হওয়ায় জেলার গ্রামগুলোতে সংখ্যালঘুদের পাশাপাশি সাধারণ মানুষদের মনে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। মানুষের চোখে মুখে এক চাপা আতঙ্ক লক্ষ্য করা যাচ্ছে। পাশাপাশি তাদের ভিতর কাজ করছে নানা ধরণের উৎকন্ঠা। এই সমস্যা নিরসনে মাগুড়া, চুয়াডাঙ্গার পর এবার মেহেরপুরের পুলিশ সুপার গ্রামের সাধারণ মানুষের সমন্বয়ে গড়ে তুলছেন প্রতিরক্ষা দল গঠন কর্মসূচী। এসকল দলের সদস্যরা রাত জেগে পাহারা দিয়ে জনসাধারণের ভিতি দূর করবে এবং সন্ত্রাসীদের রুখবে। জেলার প্রতিটি গ্রামে গ্রামে এ ধরনের একাধিক দল তৈরি করা হচ্ছে। দলের প্রতিটি সদস্যর হাতে তুলে দিচ্ছেন একটি করে বাঁশের লাঠি, বাশি ও টর্চলাইট।

 

12বুধবার বিকালে মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার বামন্দি ইউনিয়নের দেবীপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে প্রতিরক্ষা দল গঠনের লক্ষ্যে এক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে সামসুজ্জোহা মাষ্টারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার হামিদুল আলম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আহমারুজ্জামান, গাংনী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আকরাম হোসেন, বামন্দি ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়াল হোসেন, নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান শহিদুল হক বিশ্বাস। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক মাজেদুল হক, ফারুক আহমেদ প্রমুখ।

সমাবেশ শেষ ওই ইউনিয়নের দেবীপুর, ঘোড়াঘাট ও চকখল্যানপুর গ্রামের সাধারণ মানুষদের নিয়ে ১০টি প্রতিরক্ষা কমিটি গঠন করা হয়। প্রতিটি কমিটিতে সদস্য সংখ্যা ১০ জন। কমিটি গঠন শেষে আনুষ্ঠানিকভাবে পুলিশ সুপার হামিদুল আলম প্রতিরক্ষা দলের সদস্যদের হাতে একটি করে বাঁশের লাঠি, বাঁশি ও টর্চলাইট তুলে দেন। সমাবেশে অন্যদের মধ্যে ব্যবসায়ী, রাজনৈতিক, শিক্ষকসহ নানা শ্রেণী পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

সুত্রে জানা যায়, ঝিনাইদহসহ সারা দেশে গত দুই বছরে ৪৯ ভিন্ন মতালম্বীকে একই কায়দায় হত্যা করা হয়েছে। এদের মধ্যে মন্দিরের পুরোহিত, আশ্রমের সেবায়েত, খ্রিষ্টান ব্যবসায়ী, শিয়া সদস্য, ব্লগার রয়েছেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বর্তমান চেয়ারম্যান আওয়াল হোসেন বলেন, সন্ত্রাস প্রতিরোধে সকল অভিভাবককে সচেতন হতে হবে। প্রতিটি পরিবারের ছেলে মেয়েরা কখন কোথায় কি করছে তার খোঁজ খবর যদি তার বাবা মা নেন তাহলে অনেকাংশেই সন্ত্রাস কমে যাবে। গ্রাম প্রতিরক্ষা দল গঠনরে বিষয়ে তিনি বলেন, এ ধরণের উদ্যোগ অবশ্যাই এলাকায় সকল প্রকার সন্ত্রাসী কর্মকান্ড দূর করতে সাহায্য করবে।

23নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম বিশ্বাস বলেন, বামন্দি ইউনিয়নে কোনো সন্ত্রাসীর ঠাঁই হবে না। আপনারা যখন যেখানে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে আমাকে ডাকবেন কাছে পাবেন। সন্ত্রাসী প্রতিরোধে গ্রাম প্রতিরক্ষা দলের সদস্যদের আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, নিজের পরিবারকে নিজেকে রক্ষা করতে হবে পুলিশসহ স্থানীয় প্রশাসন আপনাদের সহযোগীতা করবেন।

অনুষ্ঠান পরিচালনার মাঝে গাংনী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আকরাম হোসেন বলেন, এই এলাকার সকল গ্রামে একাধিক প্রতিরক্ষা কমিটি গঠন করা হবে। পুলিশ ওই সকল কমিটির সদস্যদের সহযোগীতা করবে। যে কোনো মূল্যে এলাকাকে সন্ত্রাস মুক্ত করতে হবে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আহমারুজ্জামান বলেন, মেহেরপুর জেলাকে যেভাবে বাল্যবিয়ে মুক্ত করা হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় জেলাকে সন্ত্রাস ও মাদকমুক্ত করা হবে। সাধরণ মানুষ যাতে আতঙ্কে না থাকে তার জন্য পুলিশ প্রতিরক্ষা দলকে সকল সহযোগীতা করবে।

 

20160615_171650পুলিশ সুপার হামিদুল আলম গ্রাম প্রতিরক্ষা দলের সদস্যদের আহবান জানিয়ে বলেন, মেহেরপুর জেলাই কোনো সন্ত্রাসীর ঠাঁই হবে না। যে কোনো মূল্যে জেলাকে সন্ত্রাস মুক্ত করতে হবে। সংখ্যালঘুসহ সাধারণ মানুষকে শান্তিতে বসবাস করার সুযোগ করে দিতে হবে। তিনি আরো বলেন, এভাবে জেলার সকল গ্রামে একাধিক প্রতিরক্ষা দল গঠন করা হবে।

এ উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়ে জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সহসভাপতি ও জেলা জজ আদালতের সরকারী কৌসুলী পল্লব ভট্টাচর্য বলেন, এতে সংখ্যালঘুসহ সাধারণ মানুষ কিছুটা হলেও নিরাপত্তা বোধ করবে। একই সঙ্গে তিনি আরো বলেন, পুলিশ প্রশাসনের পাশাপাশি নিজেকেও নিজের মত করে নিরাপত্তা বলয় তৈরি করতে হবে।

Facebook Comments
Social Media Sharing
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful