Templates by BIGtheme NET
Home / বর্তমান পরিপ্রেক্ষিত / মেহেরপুরে হত্যা মামলার সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামির আত্মসমর্পণ

মেহেরপুরে হত্যা মামলার সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামির আত্মসমর্পণ

মেহেরপুর নিউজ, ০৪ মার্চ:
মেহেরপুর সদর উপজেলার গোপালপুরে চাঞ্চল্যকর জোড়া খুন মামলার অন্যতম সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি বাশারুল ইসলাম আদালতে আত্মসমর্পণ করেছেন।

রবিবার দুপুরে মেহেরপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ (ভারপ্রাপ্ত) আয়েশা নাসরিনের আদালতে আত্মসমর্পণ করলে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

জানা গেছে, ২০০৮ সালের ২৪ অক্টোবর দিবাগত রাতে ডাকাতরা মোটরসাইকেল লুট করে নেওয়ার সময় ডাকাতদের চিনে ফেলায় সদর উপজেলার গোপালপুর গ্রামের লোকমান হোসেন ও হালিমা খাতুন নামের দুই জনকে গলাকেটে হত্যা শেষে গ্রামের একটি পুকুর পাড়ে লাশ রেখে পালিয়ে যায় ডাকাতরা। পরদিন সকালে মেহেরপুর সদর থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করে। ওই দিনই বিকালে সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। মামলা প্রাথমিক তদন্ত শেষে আদালতে অভিযোগ পত্র দাখিল করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা। মামলায় ১৬ জন সা¶ী আদালতে সা¶্য প্রদান করেন। মামলায় রাষ্ট্রপক্ষে অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর কাজী শহিদুল হক এবং আসামি পক্ষে কামরুল হাসান আইনজীবীর দায়িত্ব পালন করেন। মামলার সাক্ষ্য ও নথি পর্যবেক্ষন করে আদালত ২০১৭ সালের ৬ জুলাই ৯জনের যাবজ্জীবন জেল দেন। দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন সদর উপজেলার টেঙার মাঠ গ্রামের জুলমত ডাকাতের ছেলে বাশারুল ও মহিদুল, গাংনী উপজেলার দিঘলকান্দী গ্রামের রিফাত আলীর ছেলে শহিদুল ইসলাম ওরফে শহিদুল কানা, এবং সাহেব আলী, কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার শিতলাইপাড়ার আমজাদ মোল্লার ছেলে এনামুল ওরফে ইন, একই গ্রামের গোলজার শেখের ছেলে মান্নান , গাংনীর সাহেবনগর গ্রামের ফকির আলীর ছেলে মো: নাজির, গাংনীর রামনগর কাজীপুরপাড়ার কালা চানের ছেলে মোহন ও আব্দুল লতিফের ছেলে অজিত। একই মামলায় চাঁদ আলী ও জাপান নামের দুই আসামিকে খালাস দেওয়া হয়েছে।

Facebook Comments
Social Media Sharing
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.