Templates by BIGtheme NET
Home / অন্যান্য / মেহেরপুর মহিলা ক্লাবের ব্যাতিক্রম উদ্যোগ ।। দরিদ্রপীড়িত ও অসহায় মহিলাদের স্বাবলম্বী করতে “মিনা ক্লাব”

মেহেরপুর মহিলা ক্লাবের ব্যাতিক্রম উদ্যোগ ।। দরিদ্রপীড়িত ও অসহায় মহিলাদের স্বাবলম্বী করতে “মিনা ক্লাব”

Meherpur, Mina Club Orientation Pic-2মেহেরপুর নিউজ,০৪ নভেম্বর:

জেলার দরিদ্রপীড়িত ও অসহায় মহিলাদের স্বাবলম্বী করতে ব্যাতিক্রম উদ্যোগ গ্রহণ করেছে মেহেরপুর মহিলা ক্লাব। গতানুগতিক ধারায় শুধু সাহায্য করেই না বরং স্বাবলম্বী করার একটি গঠনমূলক পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে চলেছে ক্লাবটি। তারই অংশ হিসেবে জেলার দরিদ্রপীড়িত অসহায় মহিলাদের নিয়ে “মিনা ক্লাব” নামের সহযোগী সংগঠনের যাত্রা শুরু করলো মহিলা ক্লাবের সদস্যরা। জেলার বিভিন্ন গ্রাম থেকে বাছাই করা হয় ২২ জন অসহায় মহিলাকে। যাদের মধ্যে কেউ এসিডদগ্ধ, কেউ অন্ধ আবার কেউ বা প্রতিবন্ধী। পাশাপাশি কাজ করে জীবন চালাতে পারে এমন কিছু মহিলা। এসকল মহিলাদের নিয়ে যাত্রা শুরু করলো “মিনা ক্লাব”।
যাত্রার শুরুতে ১১জন মহিলাকে দেয়া হলো সেলাই মেশিন এবং বাকি ১১ জন মহিলাকে দেয়া হলো দুটি করে ছাগল (ছাগী)।
DSC_3047বুধবার দুপুরে মেহেরপুর সার্কিট হাউস মিলনায়তনে মিনা ক্লাবের যাত্রা শুরুর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন মেহেরপুর মহিলা ক্লাবের সভাপতি ও জেলা প্রশাসক পত্মী লতিফা খানম চৌধুরী। অনুষ্ঠানে মহিলা ক্লাবের সহসভাপতি নার্গিস বানু, শাহজাদী আলম, শারমিন আকতার, সদস্য ফারজানা হাসান. শিউলি পারভিন মনি, নারগিস পারভিন অনামিকা আফরোজ, মুনমুন চৌধুরী, ইয়াসমিন লতা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে জেলা প্রশাসক মো: শফিকুল ইসলাম, পুলিশ সুপার হামিদুল আলম, গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আহসান উল্লাহ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) খাইরুল হাসান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) হেমায়েত হোসেন, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: মঈনুল হাসান, গাংনী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: আবুল আমিন, মুজিবনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হেমায়েত হোসেন, সহকারী কমিশনার (ভুমি, সদর) মো: শাহীনুজ্জামান, সহকারী কমিশনার ভুমি, গাংনী ) রাহাত মান্নানসহ সহকারী কমিশনারবৃন্দ, বিভিন্ন গনমাধ্যমের সাংবাদিক ও মীনা ক্লাবের উপকারভোগী সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন মহিলা ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শুভ্রা দাস ও সহকারী কমিশনার মোহাম্মদ নুর এ আলম।
Meherpur, Mina Club Orientation Pic-3মহিলাদের অর্থনৈতিক ও সামাজিকভাবে উপযুক্ত করে গড়ে তোলাই হবে মিনা ক্লাবের মূল উদ্যোশে বলেন মেহেরপুর মহিলা ক্লাবের সভাপতি লতিফা খানম চৌধুরী। তিনি বলেন, একজন মহিলা শুধু মাত্র সাহায্য করার মানসিকতা নিয়ে কিছু অনুদান করলে তার জীবন মান উন্নয়নের কোনো ইচ্ছা থাকে না। তিনি বলেন, কিন্তু যদি তাকে একটি নির্দিষ্ট শর্তের মধ্যে দিয়ে অনুদান দেয়া হয় তাহলে তার কর্মপ্রেরণা যোগায়। যেমন আমরা একজনকে দুটি ছাগল অনুদান দেব। ছাগল দুটি টি সে লালন পালন করে যখন বাচ্চা জন্ম দেবে সেখান থেকে সে একটি বাচ্চা এই মিনা ক্লাবকে উপহার হিসেবে ফেরত দেবে। সেই বাচ্চাটি মিনা ক্লাব আবার অন্য একজন অসহায় মহিলাকে অনুদান হিসেবে দেবে। তিনি আরো বলেন, আবার যে সেলাইয়ের কাজ পারে তাকে আমরা Meherpur, Mina Club Orientation Pic-1একটি সেলাই মেশিন অনুদান হিসেবে দেব। বিনিময়ে সে তার সুবিধামত সময়ে কিছু টাকা মিনা ক্লাবকে উপহার হিসেবে ফেরত দেবে। এভাবে “মিনা ক্লাব” মেহেরপুর জেলাকে একদিন “ স্বাবলম্বী মহিলাদের জেলা” হিসেবে দেশের একটি মডেল জেলায় পরিনত হয়ে উঠবে। তিনি বলেন, তাঁত কাজের সাথে জড়িত মহিলাদের স্বাবলম্বী করারও কথা ভাবছি আমরা।
উকারভোগীদের একজন প্রতিবন্ধী রাবেয়া খাতুন। তার বাড়ি জেলার গাংনী উপজেলার বাঁশবাড়িয়া গ্রামে । তাকে গত মাসে এ ক্লাব থেকে একটি সেলাই মেশিন দেয়া হয়েছিলো। সে এ অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে তার অনুভুতীতে বলেন, মহিলা ক্লাবের আপারা আমাকে সম্মান নিয়ে বাঁচতে শিখিয়েছে। আমি এখন সেলাই মেশিনে কাজ করে চাহিদা মেটানোর পর প্রতিদিন সেখান থেকে কিছু টাকা জমাতে পারছি। আরও কিছু টাকা হলে আমি এ ক্লাবকে উপহার দেব। রাবেয়ার মত শিউলি খাতুন একজন অন্ধ প্রতিবন্ধী তাকে এ অনুষ্ঠানে দেয়া হলো দুটি ছাগল। তার বাড়ি গাংনী উপজেলার চিৎলা গ্রামে। এসিডদগ্ধ কাজলী খাতুনকে দেয়া সেলাই মেশিন।
এর আগে গত মাসে গাংনী উপজেলার ৩ জন মহিলাকে ছাগল ও একজন কে সেলাই মেশিন অনুদান দিয়েছিলো। এদিয়ে মোট ২৬ অসহায় মহিলার পাশে দাড়ালো মেহেরপুর মহিলা ক্লাব।

Facebook Comments
Social Media Sharing
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.