Templates by BIGtheme NET
Home / বর্তমান পরিপ্রেক্ষিত / ২০১৪ সালে নির্বাচন না করে বিএনপি যে ভুল করেছে তার খেসারত তারা দিচ্ছে….. রাশেদ খান মেনন

২০১৪ সালে নির্বাচন না করে বিএনপি যে ভুল করেছে তার খেসারত তারা দিচ্ছে….. রাশেদ খান মেনন

মেহেরপুর নিউজ, ২৩ ফেব্রুয়ারী:
বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটন মন্ত্রী এবং বাংলাদেশের ওয়ার্কাস পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেছেন, ২০১৪ সালে নির্বাচন না করে বিএনপি নিজের দলের যে ক্ষতি করেছে তার খেসারত তারা দিচ্ছে। তারা রাজনীতিতে ব্যার্থ হয়েছে। সেই ব্যর্থতার দায়ভার নির্বাচন কমিশন ও সরকারের উপর চাপিয়ে দিয়ে নির্বাচন থেকে পালাতে চান। এবার যদি তারা পালিয়ে যায় তবে শেষবারের মত পালাতে হবে। তাই বিএনপির বন্ধুদের বলি আপনাদের ফেলের দায়ভার জনগণকে দেবেন না।

বৃহস্পতিবার বিকালে মেহেরপুরের গাংনী ফুটবল মাঠে আয়োজিত দলীয় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, বিএনপি এখন নাকে কান্না শুরু করেছে। তারা বলছে নির্বাচন কমিশন নিরপেক্ষ হয় নাই। এই নির্বাচন কমিশনের অধিনে নির্বাচন সম্ভব নয়। নির্বাচন করতে হলে সহায়ক সরকার লাগবে। রাশেদ খান মেনন আরো বলেন, এই নির্বাচন কমিশনের অধীনেই জাতীয় নির্বাচন হবে। আমরা নিশ্চিত যে আগামী নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠ, নিরপেক্ষ ও গণতান্ত্রিক নির্বাচন হবে।

]বিএনপির হুমকীতে জনগণ সাড়া দেবেনা উল্লেখ করে রাশেদ খান মেনন আরো বলেন, খালেদা জিয়া বা আমি অথবা যেই হোক অপরাধীরা সকলেই আইনের চোখে সমান। তারা সকলেই অবশ্যই আইনের আওতায় আসবে। নির্বাচন কমিশন প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, নির্বাচন কমিশন গঠন করার জন্য সংবিধানের ১১৮ অনুচ্ছেদের যে বিধান অনুযায়ী আইন করা প্রয়োজন। সময় না থাকার কারনে সার্চ কমিটির মাধ্যমে নাম নিয়ে রাষ্ট্রপতি বিভিন্ন বুদ্ধি জীবিদের সাথে পরামর্শ করে নির্বাচন কমিশন গঠন করেছেন। স্বচ্ছ এবং নিরপেক্ষভাবেই নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়েছে বলে আমরা মনে করি। প্রধান নির্বাচন কমিশনার নাকি আওয়ামীলীগের, বিএনপির এ দাবীকে ভূয়াঁ ও যুক্তিহীন উল্লেখ করে তিনি বলেন, প্রধান নির্বাচন কমিশনার সারাজীবন চাকুরী করেছেন। তিনি বিসিএস এ্যাডমিনিস্ট্রেশনের লোক। আমাদের দেশের নির্বাচন কমিশনার সাধারণত এ্যাডমিনিস্ট্রেশন থেকেই হয়ে থাকেন।

বাংলাদেশের ওয়ার্কাস পার্টির জেলা শাখার সধারণ সম্পাদক কমরেড আব্দুল মাবুদের সভাপতি আলোচনা সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন, দলের পলিট ব্যুরো সদস্য কমরেড আনিছুর রহমান মল্লিক, কমরেড নুর আহমেদ বকুল, এ্যাডভোকেট মুস্তফা লুৎফুল্লাহ এমপি, অধ্যাপক ইয়াছিন আলী এমপি ।

এর আগে মন্ত্রী গাংনীতে পৌছালে মেহেরপুর জেলা প্রশাসক পরিমল সিংহ, পুলিশ সুপার আনিছুর রহমান ও গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফ উজ জামান, গাংনী থানার ওসি আনোয়ার হোসেন তাঁকে স্বাগত জানান ও কুশল বিনিময় করেন।

আলোচনা সভায় মেহেরপুরসহ আশেপাশের বিভিন্ন জেলার দলীয় নেতাকর্মীরা অংশগ্রহণ করেন।

Facebook Comments
Social Media Sharing
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.