Templates by BIGtheme NET

কবিতা

কবির মানসকন্য

কবির মানসকন্য – রাসেল ইনাম শিমুল এ কোন মায়াবিনী, এ কোন নন্দিনী। এ দৃষ্টিগ্রাহ্য কল্পনাতীত এক লালিত্য কামিনী। এ যেন মেঘদূত কাব্যর যক্ষের প্রিয়া। এ যেন কবির কল্পনায় এলো বিরহ নিয়া। এ যেন বৈষ্ণব পদাবলীর সপ্নদষ্ট্রা রাধা। কৃষ্ণ বিহিন তাহারে ...

বাকি অংশ »

বাঁচাও মানব কুল

বাঁচাও মানব কুল -এম.সোহেল রানা               রহমানের রহিম তুমি,তুমি মেহেরবান তুমিই পার জীবন বাঁচাতে,আবার করতে অবসান, আমরা মানব ভীষণ পাপি,করেছি কত ভুল তোমার কুদরতি বৃষ্টি দিয়ে, বাঁচাও ভূমি পক্ষী-মানব কুল। বৃষ্টির লাগি নদ-নদী ভূমি ...

বাকি অংশ »

বাড়িটি খুঁজে পাচ্ছি না

তারিক-উল ইসলাম: আর এক বাড়ি পেরোলেই আমাদের বাড়িটি; অথচ বাড়িটি খুঁজে পাচ্ছি না।দুপুর থেকে ছাদে ঝুলছে টাঙানো তারে মেলে দেয়া মায়ের শাড়িটি। ল্যাম্পপোস্টের আধো আলো আধো অন্ধকারে হলুদ আলোয় খেলা করছে ঝাঁক ধরে উড়ে আসা রাতপোকা; পাশেই গাছটিতে ডাকছে তক্ষক। ...

বাকি অংশ »

বসন্ত সুন্দরী

রাসেল ইনাম শিমুল হে বসন্ত সুন্দরী – কই তুমি ? পাইনাতো দেখা। চারিদিকে ফুলে ভরা – তবুও আমি কেনো একা বসন্তের পরশ পেয়ে, মন আমার খোলা। ফুল হয়ে আমায় কেনো দিচ্ছো নাকো দোলা। হে বসন্ত সুন্দরী- এতদিন ভালই ছিলাম আমি ...

বাকি অংশ »

এ বর্ষেও থেকো হর্ষে

তারিক-উল ইসলাম: কুয়াশা অন্তর্হিত হয়, ফোটে আনন্দ ফুল; কী নামে যে ডাকি তাকে গোলাপ, গাঁদা, ডালিয়া নাকি চন্দ্রমল্লিকা; শীতে আসে নতুন বছর। বর্ণিল পাপড়ি উদ্বাহু ডাকে, এসো; বলে- এ বর্ষেও থেকো হর্ষে। সূর্যমুখী চোখ, পিটুনিয়া চুলের বিনুনি, ডায়ান্থাস হাতের কাঁকন-বন্ধনী ...

বাকি অংশ »

তখন ঊনিশ

তারিক-উল ইসলাম: তখন ঊনিশ, উছলে পড়া দিন রোদেও জলের ঢেউ ঘাস-শিশিরে সূর্য আনে ভোর আড়ালে চোখ, কেউ দেখছে জানি জোৎস্না মাখা চোখে মহুয়া ফুল নাচে শিরিষ পাতায় কাঁপন তোলা ছবি কে বাঁচায় কে বাঁচে! মিছিলে মুখ দুরন্ত সেই হাত অফুরন্ত ...

বাকি অংশ »

জানালাটা খোলা থাক

তারিক-উল ইসলাম: আজ রাতে পর্দা ওড়াবে বাতাস,জানালাটা খোলা থাক, আসুক ধূলো, পাংক্তেয় বৃষ্টিজলের ছটা চোখ ছুঁয়ে যাক। বিড়ালের নি:শব্দ পায়ে হাঁটুক একজন সারা ঘর জুড়ে, কলাকৈবল্যে ফেলুক দেয়ালে বাঁধানো ছবি, যাক পুড়ে। অ্যাসট্রেটা হোক ফুলদানি, বলুক আসুক বাউরি ঝড় ভোলেনি ...

বাকি অংশ »

লিখেছে সে

তারিক-উল ইসলাম: নদীর জলে অবুঝ সবুজ পাতা, আকাশ যেন ত্রাতা ডাক দিয়ে মেঘ ওড়ে। আসছে শরত নেমে, শিউলি-কাশে অাসছো তুমি মন যে কেমন করে। বর্ষাজুড়ে ভরসা ছিল লেখা, রেখেছি সেই চিঠি হাতটা দিও-প্রিয়। সময় রেখো পাশে, গল্প বলা দীর্ঘ রাতের ...

বাকি অংশ »

চড়ুই ভোরে ডাকে মেঘের পাখি

তারিক-উল ইসলাম: হাতের অাঙুল কড়া নাড়ে- আছো ? হল্লা যেন, মহল্লাতে- বাঁচো । খিড়কি দুয়ার, কপাট খুলে রাখি; সাড়া পেলেই রঙ-তুলি নিই, আঁকি । তখনও চাঁদ দিচ্ছে জানান- আছি; গাছ পেরিয়ে, মাঠ ছাড়িয়ে- মাছি । সবুজ জলে ভৈরবী সুর ভাসে ...

বাকি অংশ »

প্রিয়, ও প্রিয় …………..

তারিক-উল ইসলাম: একটি লাল, আরেকটি হলুদ, সবুজ পাতার পাশে অারেকটি গাঢ় রক্তলাল। একটি প্রেমের, অারেকটি দ্রোহের, একটি নতমুখী ,অারেকটি উড়ন্ত সকাল। একটি হাসিমুখ-উন্মুখ, আরেকটি পস্ট , আধেক আরেকটি শুধুই বহাল। ফেলোনা কিছুই, থেকো, অনিমেষ যৌথযাত্রায় থেকো , কাল-সমকাল। গাঁথা সবুজে ...

বাকি অংশ »

ভেবোনা, ভালো থেকো

তারিক-উল ইসলাম: যদিও বিষণ্ন বিকেল তবু হাঁটু মুড়ে জলে-জানালায় রেখো চোখ। এঁকো হাসি। বিষাদ তো বিপন্ন সময়ের সঙ্গী । ছেড়ো নাকো তার হাত। যে অসুখ বৈরাগ্যের, তাকে কখনও বলোনা বিদায়। হননের দিনলিপি সখা যার, তাকে রেখো না বেঁধে। সেঁধে দিও ...

বাকি অংশ »

আবেগ হটাও বিবেক খাটাও

—– মো: মুরশিদ দ্বীপ্ত আশা ভালবাসা জন্ম দিয়ে মনে, কেন কর ছিনি বিনি প্রতিকুলের সনে? মন তো আর পাথর নয় কোমলতায় ঘেরা, ক্ষণিকের আবগে দিয়ে দিচ্ছ কেন বেড়া? তুমি হয়তবা সরে যাবে তোমার চেতনা সস্তা, ভাবছ একবার প্রতিকুলের কি হবে ...

বাকি অংশ »

শব্দ ভিক্ষা

সুখি ইসলাম সময়ের বিড়ম্বনায় অসমাপ্ত রয়ে গেল আমার লেখা। বিবর্তনের মাঝে অসম্পূর্না আমি। নিস্তব্ধ দ্রোহের মায়াজালে শুন্যতার প্রতেশ্রুতি । ধ্রুপদী নৃত্যর মায়াবী আঘাতে ঝরে পড়েছে আমার স্বপ্ন। কালিহীন কলম ত্রিকোন পার্কে নাগর দোলায় ঘূর্ণায়মান, ঠিকানাহীন মেঘের বিমর্ষ মুখ স্বরণ করে ...

বাকি অংশ »

যুদ্ধ মানে কি ?

মো: বরকত অালী যুদ্ধ মানে কি ? যুদ্ধ মানে- মায়ের সামনে সন্তানের মৃত্যু ; ভাইয়ের সামনে বোনের চিৎকার । যুদ্ধ মানে কি? যুদ্ধ মানে – অগ্নিশিখায় জ্বলে উঠা ঘর বাড়ি; হানাদার বাহিনীর দৌড়াদৌড়ি। যুদ্ধ মানে কি? যুদ্ধ মানে- রক্তের হলি ...

বাকি অংশ »
by webs bd .net
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.